৪ঠা জুন, ২০২০ ইং, বৃহস্পতিবার

জুড়ী উপজেলা পশ্চিম গবিন্দপুরের রাস্তাটি সংস্কার করল জুড়ীর যুবকরা।

আপডেট: মে ১৩, ২০২০

ফেইসবুক শেয়ার করুন

 জুড়ী প্রতিনিধি : মৌলভীবাজার জেলার   জুড়ী উপজেলা পশ্চিম গবিন্দপুরের রাস্তাটি এশিয়ার বৃহত্তম হাওর হাকালুকি’র দক্ষিণ পূর্ব দিকে অবস্থিত।

এ কারণে বর্ষা বা শুকনো মৌসুমে নানাবিধ কাজে প্রচুর লোকজন এবং যানবাহনের সমাগম ঘটে।
বিশেষ করে বোরো ধান ঘরে তুলতে এ অঞ্চল সহ উপজেলার বিভিন্ন প্রান্তের   মানুষ এই রাস্তাকে অন্যতম  প্রধান রাস্তা হিসেবে ব্যবহার করে।
রাস্তাটি পাকাকরন না থাকার কারনে মানুষের যাতায়াতে অনেক কষ্ট হয়।
বিভিন্ন সময় গর্ত ও হয়ে যায়।এসব গর্তে মাটি ভরাট করে স্বেচ্ছায় রাস্তার  সংস্কার করল এলাকার যুবকরা।

গত সোমবার (১১) রাত গোবিন্দপুর সমাজকল্যাণ সংস্থা’র যুবকরা  স্বেচ্চায় মাটি খনন এবং রাস্তা ভরাটের কাজ করে।
সংস্থার সভাপতি আহমেদ রেজা রুবেল ও সাধারণ সম্পাদক এম. কামরুল ইসলাম এর সার্বিক তত্বাবধানে প্রায় ১ কিলোমিটারের মত রাস্তার বিভিন্ন গর্ত ভরাট  এবং সমতলের কাজ সম্পন্ন হয়।
এতে আরো উপস্থিত ছিলেন  সংস্থার সিনিয়র সহ-সভাপতি , সাংগঠনিক সম্পাদক , কোষাধ্যক্ষ , কার্যকরী সদস্য , শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক , ও সিনিয়র সদস্য বৃন্দ। 

সংস্থার সিনিয়র সহ-সভাপতি বলেন, এ রাস্তা দিয়ে অনেক মানুৃষের চলাফেরা।কিন্ত অত্যন্ত দুঃখের বিষয় হলো আমাদের রাস্তাটি পাকা না হওয়ার দরুন অল্প বৃষ্টি বা সীমিত পরিসরে যানবাহন চলাচল করার কারণে রাস্তাটি ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পড়ে। যার কারণে স্কুল, কলেজের পড়ুয়া শিক্ষার্থী সহ গ্রামবাসীর জন্য চলাচল করা কস্ট সাধ্য হয়ে পড়ে। জরুরি রোগীদের হাসপাতালে নিয়ে যেতে বিলম্ব হয়।সম্প্রতি বোরো ধান ঘরে তুলার পর থেকে অতিরিক্ত যানবাহন চলাচল করার কারণে রাস্তার বিভিন্ন স্থান ভাঙণ,  উঁচুনিচু সহ অল্প বৃষ্টি’তে পানি জমে থাকতো।

এর থেকে পরিত্রাণ পেতে আমরা যুবক’রা এগিয়ে আসি এবং তারাবীহ’র নামাজের পর থেকে সেহরি’র সময় পর্যন্ত প্রায় ঘন্টা পাঁচেক নিকটবর্তী হাওর থেকে গাড়ি দিয়ে মাটি এনে রাস্তা ভরাট করে দেই।
উপজেলার প্রায় সহস্রাধিক মানুষের কথা চিন্তা করে আমরা এই রাস্তা দ্রুত সম্প্রসারণ এবং পাকা করনের জন্য সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের নিকট জোর দাবি জানাচ্ছি “।

39 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Nature
error: কপি করছেন কেন ? আমি আপনার আইপি সেভ করলাম।
Frank Dinar