৮ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

কুলাউড়ায় ১০ লাখ টাকার বৈদ্যুতিক তার উদ্ধার, আটক ২

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২১

ফেইসবুক শেয়ার করুন

এস আর অনি চৌধুরী :: কুলাউড়া থানা পুলিশের এক সফল অভিযানে বৈদ্যুতিক তার চুরির মামলায় পলাতক আসামি ময়নুল ইসলামকে সিলেট ওসমানীনগর থানা এলাকা থেকে ও কুলাউড়ার টিলাগাঁও এলাকা থেকে অপর আসামি রাজেল আহমদ ময়নুল নামে ২ তার চোরকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে। এছাড়া অভিযানকালে ইতিমধ্যে পিকআপ ভর্তি ১০ লাখ টাকা মূল্যের চোরাই বৈদ্যুতিক তার জব্দ করা হয়েছে। কুলাউড়া থানার ওসি বিনয় ভূষণ রায়ের নেতৃত্বে এবং ওসি (তদন্ত) আমিনুল ইসলামের সহযোগিতায় এসআই আব্দুর রহিম জিবানসহ পুলিশ ফোর্সের সফল অভিযানে চোরাই তারসহ ২ চোরকে আটক করা হয়।
থানা সূত্রে জানা যায়, কুলাউড়া থেকে একটি পিকআপ গাড়িযোগে গত ৪ ফেব্রুয়ারি ভোররাতে বৈদ্যুতিক তার চুরি করে রবিরবাজারের দিকে নিয়ে যাওয়ার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুলাউড়া থানা পুলিশ পিকআপ গাড়িটি টিলাগাঁও নয়াবাজারে আটক করার জন্য ধাওয়া করলে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে নয়াবাজার-ডরিতাজপুর গ্রামের কাঁচা রাস্তায় চোরেরা গাড়ি ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে পুলিশ চোরাই ৮০০ মিটার বৈদ্যুতিক অ্যালুমিনিয়াম মারলিন তার, মূল্য অনুমান ১০ লাখ টাকা ও টাটা পিকআপ গাড়ি উদ্ধার করে থানায় জব্দ করা হয়। এ ব্যাপারে এসআই কামরুল ইসলাম বাদী হয়ে ঘটনার বিষয়ে থানায় মামলা দায়ের করলে কুলাউড়া থানা পুলিশ আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য বিভিন্ন জায়গায় সাড়াশি অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানের এক পর্যায়ে অফিসার ইনচার্জ বিনয় ভূষণ রায় ও পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ আমিনুল ইসলাম এর নেতৃত্বে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে এসআই মো. আব্দুর রহিম জিবান গত বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) রাত ১.৩০ ঘটিকায় সিলেট জেলাধীন ওসমানীনগর থানা এলাকার গোয়ালাবাজারে এক অভিযান চালিয়ে পলাতক আসামি কুলাউড়া উপজেলাধীন কাকিচার নিবাসী মৃত আব্দুস ছত্তার এর পুত্র ময়নুল ইসলামকে এবং গত বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাত ২ ঘটিকায় কুলাউড়ার টিলাগাঁও সালন এলাকায় পৃথক অভিযান পরিচালনা করে পল্লি বিদ্যুৎ অফিসে অস্থায়ীভাবে বৈদ্যুতিক কাজে নিয়োজিত লংলাখাসের নতুন বস্তি নিবাসী মো. আব্দুর রহিমের পুত্র রাজেল আহমদ ময়নুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। ওসি বিনয় ভূষণ রায় জানান, পরে গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের মৌলভীবাজার কোর্টে সোপর্দ করা হলে বিজ্ঞ আদালতে কাঃ বিঃ ১৬৪ ধারায় উভয় আসামী বৈদ্যুতিক তার চুরির দোষ স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান ও ঘটনার সাথে জড়িত অন্যান্য আসামিদের নাম প্রকাশ করে। ওসি আরও জানান, অন্যান্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

273 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন