২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার

পাকিস্তান সফর নিয়ে অনিশ্চতায় বিসিবি-পিসিবি

আপডেট: জানুয়ারি ৪, ২০২০

ফেইসবুক শেয়ার করুন

পাকিস্তানে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য সময় আছে তিন সপ্তাহেরও কম। কিন্তু টাইগারদের সেই সফর নিয়ে এখনও অনিশ্চয়তা কাটেনি। বিসিবি এই সফরে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে রাজি। তবে পিসিবি চায় বাংলাদেশকে নিয়ে তিনটি টি-টোয়েন্টি সিরিজে পাশাপাশি এক সঙ্গে টেস্ট সিরিজও আয়োজন করতে।

তার জন্য রাষ্ট্রীয়-লেভেলের নিরাপত্তা দেওয়ারও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তারা। যেমনটা তারা গত মাসে দুই টেস্ট সিরিজ উপলক্ষ্যে শ্রীলংকাকে দিয়েছিল।

তবে বিসিবি’র প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দীন চৌধুরি চান, আগে খেলোয়াড় এবং কোচরা পাকিস্তানের নিরাপত্তা পরিস্থিতি অবগত হোক। এরপরই টেস্ট নিয়ে সিদ্ধান্তের সুরাহার বিষয়ে চিন্তা করা যাবে।

পাকিস্তানের বিপক্ষে তিনটি টি-টোয়েন্টি ও দুটি টেস্ট খেলার কথা রয়েছে বাংলাদেশের। তবে বিসিবি চায় সফরটিকে দু’ভাগে ভাগ করে খেলতে। শ্রীলংকা যেমন দুই ভাগে টি-টোয়েন্টি ও টেস্ট খেলেছে তেমনি বাংলাদেশও চায় একইভাবে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলতে।

বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি সিরিজ পাকিস্তানে খেলতে রাজি। তবে টেস্টের জন্য নিরপেক্ষ ভেন্যু চায় বিসিবি। আর সেটিই মানতে নারাজ পাকিস্তান। এ ব্যাপারে বিসিবি নির্বাহী আরও বলেন, ‘আমরা পিসিবি’র সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। আমরা আগে যেমন বলেছিলাম, আমরা প্রথমে পাকিস্তানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে চায়। আমরা চায় আমাদের খেলোয়াড়, কোচিং স্টাফ এবং নিরাপত্তা দল সেখানকার পরিস্থিতি দেখুক, এরপরই সিদ্ধান্ত নেওয়া যাবে, পাকিস্তানে নাকি নিরপেক্ষ ভেন্যুতে টেস্ট সিরিজ খেলতে চায় তা।’

গত সপ্তাহে বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছিলেন, কিছু সিনিয়র খেলোয়াড়ের পাকিস্তানে টি-টোয়েন্টি সফরের ব্যাপারে উদ্বিগ্নতা প্রকাশ করার কথা। তবে পিসিএল (পাকিস্তান সুপার লিগ) পাকিস্তানে হবে, সম্পূর্ণভাবে এটা জেনে ২৩ জন বাংলাদেশি ক্রিকেটার পিসিএল ড্রাফটে নিবন্ধিত হয়েছেন।

খেলোয়াড় এবং বিসিবি কর্মকর্তাবৃন্দ উদ্বেগ প্রকাশ করলেও প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো পাকিস্তান সফর যেতে রাজি। স্থানীয় গণমাধ্যমকে তার ইচ্ছের কথা জানিয়েছিলেন তিনি। ডমিঙ্গো মনে করেন, বিসিবি এবং পিসিবি দ্রুতই সমাঝোতায় পৌঁছতে পারে।

350 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন