৯ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার

কুলাউড়ার ভাষাসৈনিক রওশন আরা বাচ্চুর ইন্তেকাল। বুধবার দাফন

আপডেট: ডিসেম্বর ৩, ২০১৯

ফেইসবুক শেয়ার করুন

ডেক্স রিপোর্টঃ বাঙালির জাতীয় জীবনে একুশে ফেব্রুয়ারি ইতিহাসের স্মরণীয় দিনের বায়ান্নোর সেই রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আমতলায় মেয়েদের আন্দোলনের মিছিলে পুলিশের ব্যারিকেডে ভেঙে নেতৃত্বদানকারী রওশন আরা বাচ্চু মঙ্গলবার ভোর রাতে রাজধানীর ঢাকা অ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্নালিল্লাহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৮ বছর। তিনি বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ হয়ে অ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ভোর সাড়ে ৩টার দিকে তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তিনি ২ মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও শুভাকাংকী রেখে গেছেন।
রওশন আরা বাচ্চুর মৃত্যু সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে ঢাকায় তার বাসভবনে অসংখ্য শুভাকাংকী-ভক্তরা তাকে দেখার ও পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানানোর জন্য ভীড় করেন। বিকেল সাড়ে ৩টায় বাংলা একাডেমিতে সবার শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য রওশন আরা বাচ্চুর মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয়। পরে বাদ আছর ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় মসজিদে মরহুমার ১ম নামাজে জানাযা অনুষ্টিত হয়। রাতে বাদ এশা মীরপুর বায়তুল আমান জামে মসজিদে ২য় জানাযা শেষে রাতে মরহুমার লাশ নিয়ে তার নিজ এলাকা মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলা শহরের উচলাপাড়ায় নিয়ে আসা হবে। বুধবার সকাল ১১ টায় তার নিজ বাড়ীর সম্মুখস্থ কুলাউড়া এনসি স্কুল মাঠে ৩য় জানাযা শেষে পারিবারিক গোরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।
রওশন আরা বাচ্চু ১৯৩২ সালের ১৭ই ডিসেম্বর কুলাউড়া উপজেলার উছলাপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। বাল্যকালের শিক্ষাজীবন তার উপজেলায় শেষ করে পরবর্তীতে পিরোজপুর গার্লস স্কুল থেকে ম্যাট্রিক,বরিশালের ব্রজমোহন কলেজ থেকে ইন্টারমিডিয়েট পাস করে ১৯৫৩ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দর্শনে অনার্স ও পরে ইতিহাসে এমএ সম্পন্ন করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দিনগুলোতেই রওশন আরা গণতান্ত্রিক প্রোগ্রেসিভ ফ্রন্টে যোগ দিয়ে ছাত্র রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। ঐ সময়ে তিনি সলিমুল্লাহ মুসলিম হল এবং উইম্যান স্টুডেন্টস রেসিডেন্সের সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। তার মরহুম স্বামী এস এ ওয়াহেদ বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনের ডাইরেক্টার ছিলেন।
শোক প্রকাশঃ
প্রবীন ব্যক্তিত্ব রওশন আরা বাচ্চুর মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করে কুলাউড়া আসনের এমপি,ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ এক শোক বিবৃতিতে উল্লেখ করেন এলাকাবাসী তার মত একজন সৎ,নিষ্টাবান ও নিবেদিতপ্রান রাজনীতিবিদকে হারিয়েছে। তিনি মরহুমার আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।

528 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন