৮ই এপ্রিল, ২০২০ ইং, বুধবার

শিরোনাম
কুলাউড়া নবীনচন্দ্র সরকারি স্কুলের দরিদ্র শিক্ষার্থী-নিম্ন বেতনভোগীদের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কুলাউড়ায় কালিটি চা-শ্রমিকের মধ্যে জেলা প্রশাসনের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কুলাউড়ায় নিষেধাজ্ঞা অমান্যের দায়ে মোবাইল কোর্ট কুলাউড়া শহরের সেই বাসার লাল পতাকা নামিয়ে হোম কোয়ারেন্টিনমুক্ত ঘোষনা কুলাউড়ায় রাতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে র‍্যাব কমান্ডারের ত্রাণ বিতরণ সিলেট ওসমানী হাসপাতালে করোনা শনাক্তে পিসিআর মেশিনের কার্যক্রম শুরু হচ্ছে মঙ্গলবার কুলাউড়ার দু’জন সিলেট করোনা আইসোলেশন সেন্টারে ভর্তি। ১০ জনের নমুনা ঢাকা ল্যাবে প্রেরন কুলাউড়া ফায়ার সার্ভিস দেয়ালে আটকে পড়া গরুকে জীবিত উদ্ধার করেছে কুলাউড়ায় আদর্শ মেডিকেল হলে ফোন দিলেই পৌছে যাবে ঔষধ

হুমায়ুন আহমেদের প্রয়াণ দিবসে নুহাশ পল্লীতে যতো আয়োজন

আপডেট: জুলাই ১৮, ২০১৯

ফেইসবুক শেয়ার করুন

জনপ্রিয় কথা সাহিত্যিক প্রয়াত হুমায়ুন আহমেদের ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী আগামীকাল ১৯ জুলাই। তাকে হারানোর শোক বুকে নিয়ে আজও কাঁদে বাংলা সাহিত্যের অনুরাগীরা। কাঁদে নাটক-সিনেমার আঙিনা।

নন্দিত লেখক ও নির্মাতার প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে তারই হাতে তৈরি করা নুহাশ পল্লী সেজেছে বিষাদের সজ্জায়। তার বিদেহি আত্মার শান্তি কামনায় নেয়া হয়েছে বেশি কিছু আয়োজন।

থাকছে কোরআন খানি, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল। নুহাশ পল্লীর আশপাশের মাদ্রাসা ও এতিমখানার ছাত্র, পরিবারের সদস্য এবং হুমায়ুন আহমেদের ঘনিষ্ট কয়েকজন লেখকসহ পাঁচ শতাধিক লোককে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে এ মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে।

নুহাশ পল্লীর ব্যবস্থাপক সাইফুল ইসলাম বুলবুল জানান, ‘শুক্রবার সকাল থেকে আশপাশের কয়েকটি মাদ্রাসা ও এতিমখানার ছাত্ররা নুহাশ পল্লীতে কোরআন তেলাওয়াত করবে। পরে তারা কবর জিয়ারত ও দোয়ায় অংশ নেবে। ওই দিনের কর্মসূচিতে অংশ নিতে হুমায়ূন আহমেদের দুই সন্তান নিষাদ ও নিনিতসহ স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন নুহাশ পল্লীতে পৌঁছাবেন।

এছাড়া কথা সাহিত্যিকের পরিবারের লোকজন, ভক্ত, বন্ধুরা কবর জিয়ারত ও মিলাদে যোগ দেবেন।’

প্রতিবছরের ন্যায় এবারও প্রিয় লেখক হুমায়ূন আহমেদের কবর জিয়ারত ও ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাতে বিপুল সংখ্যক দর্শনার্থি নুহাশ পল্লীতে আসবেন। বিশেষ করে হুমায়ূন ভক্ত তরুণ প্রজন্মের অনেক শিক্ষার্থি থাকবেন।

ব্যবস্থাপক সাইফুল ইসলাম বুলবুল আরো বলেন, ‘মৃত্যুার্ষিকীর অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের জন্য আপ্যায়নের আয়োজন করা হয়েছে। এতিম শিশু ছাড়াও বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত অতিথি, এলাকার লোকজন ও হুমায়ুন স্যারের পরিবারের লোকজন থাকবেন।

শুক্রবার ভোরে হুমায়ুন স্যারের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন নুহাশ ও তার সন্তানরা নুহাশ পল্লীতে আসার কথা রয়েছে। দিনটি ভাবগাম্ভীর্যপূর্ণ পরিবেশের মধ্য দিয়ে পালন করা হবে।’

উল্লেখ্য, জনপ্রিয় লেখক হুমায়ুন আহমেদ ১৯৪৮ সালের ১৩ নভেম্বর নেত্রকোণা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার কুতুবপুরে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা ফয়জুর রহমান আহমেদ ও মা আয়েশা ফয়েজের প্রথম সন্তান তিনি।

২০১২ সালের ১৯ জুলাই মারা যান তিনি। মৃত্যুর পর তাকে গাজীপুর সদর উপজেলার পিরুজালি গ্রামে তার নিজ হাতে গড়া স্বপ্নের নুহাশ পল্লীতে সমাহিত করা হয়।

215 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
error: কপি করছেন কেন ? আমি আপনার আইপি সেভ করলাম।
Frank Dinar