৩০শে মে, ২০২০ ইং, শনিবার

শ্রীমঙ্গলে হটলাইনে ফোন দিলে বাজার নিয়ে পৌছে যাবে ভ্রাম্যমান বিপনী গাড়ী

আপডেট: এপ্রিল ৯, ২০২০

ফেইসবুক শেয়ার করুন

অনি চৌধুরীঃ শ্রীমঙ্গল উপজেলায় করোনা পরিস্থিতিতে অসহায় গৃহবন্দী মানুষের জন্য দোড়গোড়ায় সেবা পেছে দিয়ে উপজেলা প্রশাসন ‘ঘরে থাকুন, নিরাপদে থাকুন’ শ্লোগান নিয়ে
এক প্রশংসনীয় ব্যতিক্রমী সচেতনতামূলক ও উদ্বদ্ধকরণ কর্মসূচি চালু করেছে। শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রশাসনের উদ্দোগে এবং শ্রীমঙ্গল উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির ব্যবস্থাপনা ও পরিচালনায় গত মঙ্গলবার থেকে সামাজিক দূরত্ব রক্ষা ও জনগণকে নিজ নিজ ঘরে অবস্থানে উদ্বদ্ধ করতে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যসামগ্রী ‘ভ্রাম্যমাণ বিপনী গাড়ীর’ মাধ্যমে প্রতিকীমূল্যে (২০ টাকা) মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। হটলাইন নম্বরে (০১৭০০৭১৭১৩৮) ফোন করলেই বাড়ির ভেতরে ‘কোভিড-১৯ এর শফ-২০’ এর ভ্রাম্যমান গাড়ী চাল, ডাল, তেল, আলু, পেঁয়াজ নিয়ে পৌছে যাবে। এ কার্যক্রমে নিম্ন/স্বল্প/মধ্যম আয়ের পরিবারকে অগ্রাধিকার দেয়া হবে।
শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম জানান, শ্রীমঙ্গল শহর ও উপজেলার বিভিন্ন বাজার হতে দূরবর্তী গ্রামের মানুষ ( যেহেতু যানবাহন বন্ধ এবং ঘর থেকে বের হতে মানা/সীমাবদ্ধতা) পাশাপাশি সরকারি ও বেসরকারিভাবে বিনামূল্যে বিতরণকৃত খাদ্যপণ্য যারা পাচ্ছেন না সে রকম পরিবারের কথা চিন্তা করে প্রাথমিকভাবে অফিসার্স ক্লাব ও শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রশাসনের সকল কর্মকর্তার সর্বনিম্ন একদিনের বেতন, সর্বোচ্চ ইচ্ছাধীন অর্থ এবং লেডিস ক্লাব থেকে প্রাপ্ত অনুদান দিয়ে কর্মসূচির যাত্রা শুরু করা হয়েছে। ঘরে আবদ্ধ থাকা মানুষ হটলাইনে ফোন দিয়ে ঘরে বসে অতি প্রয়োজনীয় কিছু বাজার কিনতে পেরে তারা খুবই খুশি।
কর্মসূচীর সমন্বয়কারী তাজুল ইসলাম জাভেদ জানান, গত দু’দিনে উপজেলা শহরের দুরবর্তী নোয়াগাঁও, কুঞ্জবন, কুমিল্লাপাড়া, বুদ্ধপাড়া, লামুয়া, ভৈরবগঞ্জ, মতিগঞ্জ, সরকার, ভূনবীরসহ বেশ কিছু জায়গায় ফোন কলের ভিত্তিতে ৪১০ টি পরিবারের নিকট পণ্য বিক্রয় করা হয়েছে। ঘরে বসে স্বল্পমূল্যে বাজার করতে পেরে খুবই খুশি এলাকার মানুষ। কার্যক্রমের দু’দিনেই ব্যাপক সাড়া পাওয়া গেছে। এছাড়া বয়স্ক ও শিশুখাদ্যের জন্য স্থানীয় খামার থেকে কেনা গরুর দুধ বিক্রির কথাও উদ্যোক্তারা ভাবছেন বলে তিনি জানান।

219 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
error: কপি করছেন কেন ? আমি আপনার আইপি সেভ করলাম।
Frank Dinar