২রা এপ্রিল, ২০২০ ইং, বৃহস্পতিবার

কুলাউড়ায় ইউএনও-এসিল্যান্ডের পৃথক অভিযানে দেড় লক্ষাধিক টাকা জরিমানা

আপডেট: মার্চ ২০, ২০২০

ফেইসবুক শেয়ার করুন

ডেস্ক সংবাদ :: কুলাউড়া উপজেলায় করোনা ভাইরাসের আতঙ্কের সুযোগে পেঁয়াজ বেশি দামে বিক্রি, মূল্য তালিকা না থাকা ও হোম কোয়ারেন্টাইন না মানায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর নেতৃত্বে পৃথক পৃথক ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে দেড় লক্ষাধিক টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

শুক্রবার (২০ মার্চ) রাত ৭টা থেকে ১০টা পর্যন্ত উপজেলার রবিরবাজার, ভাটেরা ও বরমচাল এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এ সময় কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম ফরহাদ চৌধুরী এবং কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান ভাটেরা, বরমচাল এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে পেঁয়াজ বেশি দামে বিক্রি করায় ভাটেরা ট্রেডার্সকে ৫০ হাজার টাকা এবং একই এলাকা ও বরমচাল এলাকার আরো ৬টি প্রতিষ্টানসহ মোট ৮৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অপরদিকে কুলাউড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজরাতুন নাঈম খান রবিরবাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে পেঁয়াজ বেশি দামে বিক্রি ও মূল্য তালিকা না থাকায় মুহিত দেবকে ৫ হাজার,মাসুক মিয়াকে ৫ হাজার,জাহিদ মিয়াকে ৫ হাজার,হারুনুর রশীদকে ৫ হাজার,শমরেন্দ্রকে ৫ হাজার,জয়নাল মিয়াকে ৮ হাজার, আব্দুর নুরকে ৫ হাজার, বিমর দেবকে ১০ হাজার, কামাল মিয়াকে ৮ হাজার ও ফয়েজ উদ্দিনকে ৬ হাজারসহ মোট ৬২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

পরে রবিরবাজার থেকে ফেরার পথে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হোম কোয়ারেন্টাইন আইন লংঘন করে বরমচাল ইউনিয়নের দুবাই ফেরত আব্দুস সামাদ চৌধুরীবাজার এলাকায় শশুর বাড়িতে যাওয়ায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ প্রদান করেন।

অভিযানে ইউএনও ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) কে কুলাউড়া থানার পুলিশ সহযোগিতা করে।

683 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
error: কপি করছেন কেন ? আমি আপনার আইপি সেভ করলাম।
Frank Dinar