২৪শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

কুলাউড়ার মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমানের ইন্তেকাল

আপডেট: ডিসেম্বর ১৯, ২০১৯

ফেইসবুক শেয়ার করুন

অনি চৌধুরী ঃ মহান মুক্তিযুদ্ধে ৪ নং সেক্টরে জীবনবাজি রেখে যুদ্ধ করেছিলেন মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার সাবেক কমান্ডার,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান আতা (৮০)। দীর্ঘ ৯ মাস যুদ্ধ করে দেশকে করেছিলেন শত্রুমুক্ত। একটি স্বাধীন সার্বভৌমত্ব বাংলাদেশ হবে, দেশের মানুষের অবস্থার পরিবর্তন হবে এমন স্বপ্ন ছিল মুক্তিযোদ্ধা আতার। তার স্বপ্নের বাংলাদেশ আজ মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে, দেশ মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। কিন্তু আতাউর রহমান আতা অবশেষে অর্থের অভাবে সু-চিকিৎসা না পেয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েছেন। জীবদ্দশায় তার পরিবার সু-চিকিৎসার অর্থের জন্য সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন করে কোন সাড়া পাননি। অবশেষে বৃহস্পতিবার কুলাউড়া শহরস্থ নিজ বাসভবনে দুপুর ১টায় ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্না—রাজেউন)। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও ২ মেয়েসহ অসংখ্য শুভাকাংকী,গুনগ্রাহী ও আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন। বৃহস্পতিবার বাদ এশা মরহুমের জানাযা উত্তরবাজার জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে অনুষ্টিত হবে। জানাযা শেষে মসজিদ গোরস্থানে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাকে দাফন করা হবে।
মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমানের পরিবারসূত্রে জানা যায়,আওয়ামীলীগ রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত সাবেক কমান্ডার আতা ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে নিজের জীবনবাজি রেখে যুদ্ধে অংশ নেন। তিনি ৪ নং সেক্টেরের অধীনের দীর্ঘ ৯ মাস মুক্তিযুদ্ধ করেন। মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে অত্যন্ত দতার সাথে কুলাউড়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি শুধু উপজেলা কমান্ডারই ছিলেন না রাজনৈতিকভাবে তিনি মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী দল আওয়ামীলীগের কুলাউড়া উপজেলা কমিটির বিভিন্ন দায়িত্ব পালনসহ সহ-সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন। এছাড়া ৭৫ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে স্ব-পরিবারে হত্যার পর সারাদেশে পুলিশের সাড়াশি অভিযানে তৎকালীন সময়ে গ্রেফতার হয়ে তিনি দীর্ঘ ৪ মাস কারানির্যাতন ভোগ করেন। যৌবনে তিনি মুক্তিযুদ্ধ ও নিজের প্রিয় রাজনৈতিক দলের জন্য অনেক ত্যাগ স্বীকার করলেও বার্ধক্যে এসে তিনি ছিলেন অসহায়। মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান আতা ব্রেইন ষ্ট্রোক করে পারকিনসন্স ডিজিজ রোগে দীর্ঘদিন থেকে শয্যাশায়ী ছিলেন। তিনি তার ব্যয়বহুল চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রীর কাছে আর্থিক সহযোগীতা কামনা করেছিলেন।
শোকবার্তা
কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও সাবেক কুলাউড়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আতাউর রহমান আতার মৃত্যুতে মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে শোক-সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন শোকবার্তা প্রদান করেছেন বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন এমপি,সাবেক চীফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ এমপি, মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নেছার আহমদ এমপি,কুলাউড়া সংসদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ, সাবেক সংসদ সদস্য নবাব আলী আব্বাছ খান, সাবেক সংসদ সদস্য এম.এম শাহীন, সাবেক সংসদ সদস্য মোঃ আব্দুল মতিন,মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মিসবাউর রহমান, মৌলভীবাজার পৌরসভার মেয়র ফজলুর রহমান, মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামীলীগের শিক্ষা ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ মোঃ আব্দুর রউফ, কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ রফিকুল ইসলাম রেনু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আসম কামরুল ইসলাম,কুলাউড়া উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম সফি আহমদ সলমান,কুল্উাড়া পৌর মেয়র শফি আলম ইউনুছ,উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওঃ ফজলুল হক খান সাহেদ,উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেহা ফেরদৌস চৌধুরী পপি,কুলাউড়া প্রেসকাব সভাপতি এম শাকিল রশীদ চৌধুরী,সাবেক সভাপতি সুশীল সেন গুপ্ত,সম্পাদক মোঃ খালেদ পারভেজ বখশ,হাকালুকি পত্রিকা সম্পাদক উপাধ্যক্ষ মোঃ আব্দুল হান্নান,সংলাপ পত্রিকা সম্পাদক অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ প্রমুখ।

1092 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন