২৭শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার

ভূয়া কুরিয়ার সার্ভিস এর প্রতারণা এড়াতে কৌশলী হতে বললেন ‘আলমগীর হোসেন’

আপডেট: ডিসেম্বর ৪, ২০২০

ফেইসবুক শেয়ার করুন

সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রতারণার ব্যাপারে পুলিশ কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন বলেন” এই নিয়ে আমাকে তিন জনে নক করেছে। প্রতারণাএ সিস্টেম একই রকমের। দেখবেন ফেসবুকে কোন পেজে তারা মোবাইল ফোন, জামাকাপড়ের বিজ্ঞাপন কিংবা দামী জিনিস কম দামে দিয়ে দেবে। আপনার সাথে ফোন কিংবা যেকোন পণ্য কেনার চুক্তি হলে তারা আপনাকে কুরিয়ারে পাঠিয়ে দিতে চাইবে। কুরিয়ারে ওদের গ্যাংয়ের লোকই আপনাকে কল করবে অনেক সময় বিশ্বাস অর্জন করার জন্য ওরা মেয়ে দিয়েও কথা বলায় এবং ফেইক স্ক্রীনশ্যুটও দেখায়। দেখবেন মেয়েটা আপনাকে বলবে আমি একজন কাস্টমার ওনাদের থেকে নিয়ে ঠকিনি খুব বিশ্বস্ত, চাইলে আপনি নিতে পারেন এরকম কথা বলবে।

আপনি যেখানে থাকেন সেখানকার কুরিয়ার সার্ভিসের নাম করে পরিচয় দেবে বলবে আপনার নামে একটি পার্সেল আছে। যে আপনাকে পার্সেল আসার কথা বলে কল করবে সে কিন্তু প্রতারক চক্রেরই সদস্য। আপনি হয়তো আপনার নিকটস্থ কুরিয়ারে গেলে দেখবেন এটা ভূয়া কল ছিল প্রকৃত কুরিয়ার’রা আপনাকে বলে দেবে। প্রতারক’রা হয়তো বলবে টাকা আগে পাঠিয়ে দিন তারপর আপনার পার্সেল নিয়ে যান। ভূলটা এখানেই করে অনেকে সরাসরি কুরিয়ারে না গিয়ে অনেকে আগে টাকা পাঠিয়ে দেয়। তারা টাকা পেয়ে গেলে সাথে সাথে কন্টাক্ট বন্ধ করে দেয়।

আপনি কুরিয়ার সার্ভিসে গেলে তারা না করে দেয় কোন পার্সেল পায়নি মর্মে। কারণ আসল কুরিয়ারে তো তারা পার্সেল পাঠায়’ই না। তারা ফেইক কুরিয়ার সেজে এই প্রতারণা গুলো করে। এরকম প্রতারণা চলতেছে এখন। অনলাইন কেনাকাটা এবং অগ্রিম টাকা আদান প্রদানের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করুন। ফেসবুকে বা সোশ্যাল মিডিয়ায় কারো সাথে খুব ভাল সম্পর্ক তৈরী হলেও কুরিয়ার হোক কিংবা নিজে সাক্ষাত করে পার্সেল রিসিভ করেন তবু সতর্ক থাকবেন। অচেনা কারো সাথে দেখা করে পার্সেল রিসিভ করলে সুন্দর এবং জনসমাগম আছে এমন জায়গাতে দেখা করুন অন্যথায় বিপদগ্রস্ত হতেও পারেন, প্রতারকদের চেহারায় তো প্রতারক লেখা থাকেনা দেখলে মনে হবে সাহেব।

লেখক : আলমগীর হোসেন
তিনি হালিশহর, চট্টগ্রাম জেলা পুলিশে কর্মরত আছেন।

830 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন