অক্টোবর ৩০, ২০১৫ ৯:৩৪ অপরাহ্ণ

সমশের মবিনের পদত্যাগে দলের কোন ক্ষতি হবে না: সিলেটে ফখরুল


বিএনপি থেকে সমশের মবিনের চৌধুরীর পদত্যাগে দলের কোন ক্ষতি হবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শুক্রবার বিকাল ৩টায় নগরীর আলিয়া মাদ্রাসাস্থ হোটেল হলি সাইডে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ফখরল বলেন, “বিএনপি একটি বৃহৎ রাজনৈতিক দল, এখানে কোন ব্যক্তির পদত্যাগে ক্ষতি হবার বিষয় নেই”। ব্যক্তি আসবে যাবে কিন্তু দলে এতে প্রভাব পড়বে না বলে জানান তিনি।

শুক্রবার বেলা পৌনে একটার দিকে নভো এয়ারের একটি ফ্লাইটে সিলেটে অবতরণ করেন তিনি। বিমানবন্দর থেকে সরাসরি হযরত শাহজালাল (রহ.) এর মাজারে গিয়ে জুম্মার নামাজ আদায় করেন তিনি। এরপর শাহপরান(র:) এর মাজার জিয়ারত করেন এই নেতা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- সিলেট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম, মহানগরের আহ্বায়ক ডা. শাহরিয়ার হোসেন, সদস্য সচিব বদরুজ্জামান সেলিম, বিএনপি নেতা দিলদার হোসেন সেলিম, এমএ হক, অ্যাডভোকেট আব্দুল গাফ্ফার, আব্দুর রাজ্জাক,  কলিম উদ্দিন আহমদ মিলন, মিজানুর রহমান চৌধুরী, রেজাউল হাসান কয়েছ লোদী, আলী আহমদ, আবুল কায়ের শামীম,শেখ মখন মিয়া, ফরহাদ চৌধুরী শামীম, অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান, আজমল বখত সাদেক,  হুমায়ুন কবির শাহীন, মাহবুব চৌধুরী, মিফতাহ সিদ্দিকী, এমদাদ হোসেন চৌধুরী, কাউন্সিলর সৈয়দ আবদুল হাদী, মহিলা দল নেত্রী কাউন্সিলর রুকশানা বেগম শাহনাজ, ছামিয়া চৌধুরী, আব্দুল আহাদ খান জামাল, মাহবুবুল হক চৌধুরী, রেজাউল করিম নাচন, শাকিল মুর্শেদ, ছাত্রদল নেতা এখলাছুর রহমান মুন্না, আব্দুল কাইয়ুম, লোকমান আহমদ, নজরুল ইসলাম, লিটন আহমদ, সুমন আহমদ, মুন্না , আলি আকবর রাজন, নাজিম উদ্দিন, আশিক উদ্দিন প্রমুখ প্রমুখ।

কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরীর পদত্যাগের পরদিন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সিলেটে এই আকস্মিক সফর নিয়ে নেতাকর্মীদের মাঝে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা।

ঢাকা যাওয়ার আগে জেলা ও মহানগর বিএনপির শীর্ষ নেতাদের সাথে তিনি জরুরী  বৈঠকে করবেন বলে জানা গেছে। সিলেট বিএনপির নেতৃত্ব সংকট নিয়ে ফখরুলের এই সফরে গুরুত্বপূর্ন সিদ্ধান্ত আসতে পারে।

নিউজটি শেয়ার করুন

error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ