আগস্ট ২৮, ২০১৫ ৬:২৬ অপরাহ্ণ

লিবিয়া উপকূলে বাংলাদেশিসহ দুইশ মানুষের মৃত্যুর শঙ্কা


লিবিয়া উপকূলে শরণার্থী বোঝাই দুটি নৌকায় প্রায় দুইশ মানুষের মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে। ত্রিপোলির জুয়ারা বন্দরের কাছে নৌকা দুটি থেকে এখন পর্যন্ত অন্তত ২০১ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে।

লিবিয়ার নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ডুবে যাওয়া নৌকা দুটিতে আফ্রিকার বিভিন্ন দেশ, পাকিস্তান, সিরিয়া, মরক্কো এবং বাংলাদেশের নাগরিকও ছিলেন।

প্রথম যে নৌকাটি বৃহস্পতিবার সকালে সাহায্যের জন্য সংকেত দেয় তাতে প্রায় ৫০ জন শরণার্থী ছিল। তবে দ্বিতীয় যে নৌকাটি পরে ডুবে যায় তাতে চারশ শরণার্থী ছিল। লিবিয়ার কোষ্টগার্ড বলছে সেখানে এখনো উদ্ধার অভিযান চলছে, তবে আশংকা করা হচ্ছে এই নৌকাতে যারা ছিলেন তাদের বেশিরভাগ মারা গেছেন। নৌকা দুটি থেকে অন্তত ২০১ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে।

পশ্চিম ত্রিপলির জুয়ারা এলাকার একজন বাসিন্দা বলছেন, সেখানকার একটি হাসপাতালে অন্তত ১০০ টি মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তবে এই তথ্যটির সত্যতা এখনো যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

প্রসঙ্গত, গত বুধবার লিবিয়া উপকূলে একটি জাহাজের খোল থেকে ৫১ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। ওই জাহাজ থেকে চারশর বেশি মানুষকে জীবিত উদ্ধার করে সুইডেনের কোস্ট গার্ড। ওইদিনই ভূমধ্যসাগর থেকে উদ্ধার করা হয় অন্তত তিন হাজার মানুষকে। এর আগে গত শনিবার লিবিয়া উপকূল থেকে ৪ হাজার ৪০০ অবৈধ অভিবাসীকে উদ্ধার করা হয়।

জাতিসংঘের হিসাব অনুযায়ী, চলতি বছরে লিবিয়া থেকে ইতালির উদ্দেশে নৌকায় করে সমুদ্র পথে যাওয়ার চেষ্টা করলে এ পর্যন্ত দুই হাজার চারশ’র বেশি শরণার্থী মারা গেছে। এ সব শরণার্থি লিবিয়া, সিরিয়া ও  ইরাকে রাজনৈতিক সংকটের কারণে মানবপাচারকারিদের সহায়তায় নৌকায় করে বিপদসংকুল এই সমুদ্র পথে যাত্রা করছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

304 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ