সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৫ ৪:২৪ পূর্বাহ্ণ

মক্কায় মসজিদুল হারামে ক্রেন ভেঙে হজযাত্রীসহ নিহত ৮৭


মক্কার প্রধান মসজিদের (মসজিদুল হারাম) নির্মাণ কাজের ক্রেন ভেঙে পড়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৮৭ হয়েছে।একই সঙ্গে আহতের সংখ্যা জানানো হয়েছে ১৮৩ জন। সৌদি আরবের বেসামরিক প্রতিরক্ষা দপ্তর থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

শুক্রবার ওই অঞ্চলে বায়ুর বেগ বেশি থাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের মধ্যে অনেক হজযাত্রীও রয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে।

সৌদি নিউজ চ্যানেল আল আরাবিয়া এ খবর নিশ্চিত করেছে।

তাৎক্ষণিকভাবে সৌদি আরবের বেসামরিক প্রতিরক্ষা বিভাগের প্রধান পরিচালক তার টুইটে ৫২ জন নিহত হওয়ার তথ্য জানিয়েছিলেন। বেসামরিক প্রতিরক্ষা বিভাগ জানিয়েছিল, আহত প্রায় ৩০ জন।

আল জাজিরার সাংবাদিক হাসান প্যাটেল মক্কা থেকে জানান, প্রত্যক্ষদর্শীরা তাকে জানিয়েছেন, স্থানীয় সময় আনুমানিক সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় মসজিদুল হারামের চতুর্থ তলায় ক্রেনটি আছরে পড়ে।

তিনি আরো জানান, এসময় মসজিদ ভর্তি মানুষ ছিল। কারণ লোকজন সাড়ে ৬টায় মাগরিবের নামাজের জন্য জড়ো হচ্ছিল। অনেকগুলো অ্যাম্বুলেন্স ওই দিকে ছুটে যেতে দেখা যাচ্ছে। দুর্ঘটনার পরপরই কর্তৃপক্ষ এলাকায় সাধারণের প্রবেশ নিষিদ্ধ করেছে।

তিনি বলেন, ‘ভবনটি নির্মাণাধীন ছিল। সাড়ে ৫টার দিকে প্রবল বৃষ্টি হলে স্থানটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে যায়।’

ফেসবুক, টুইটারসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে দেখা যাচ্ছে, মসজিদের মেঝেতে প্রচুর রক্ত ছড়িয়ে রয়েছে। ভেঙে পড়া কংক্রিট ও রক্তমাখা জামাকাপড়ও চোখে পড়ছে। ইউটিউবে ক্রেনে ভেঙে পড়ার মুহূর্তে কিছু দৃশ্যও পাওয়া যাচ্ছে।

Crane-604606

মসজিদুল হারামের ওই অংশটির বর্ধিতকরণ গত বছর থেকেই শুরু করেছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। হজের সময় মানুষের স্থান সঙ্কুলান না হওয়ায় মসজিদুল হারাম আরো চার লাখ বর্গমিটার বাড়ানো হচ্ছে। এটি হলে এক সাথে ২২ লাখ মানুষ এখানে নামাজ পড়তে পারবেন।

শুক্রবার ভেঙে পড়া ক্রেনটি এই নির্মাণ প্রকল্পেরই অনেকগুলোর ক্রেনের মধ্যে একটি।

উল্লেখ্য, চলতি মাসের শেষ নাগাদ মুসলিমদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় সম্মেলন হজ অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে বহু হজযাত্রী সেখানে গিয়ে পৌঁছেছেন।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

322 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ