আগস্ট ১৫, ২০১৫ ৩:২১ পূর্বাহ্ণ

খালেদাকে এখনই জিজ্ঞাসা করেন -সুরঞ্জিত


খুব শিগগিরই এই সরকারের পতন হবে’ বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এমন এই খবর কোথায় পেলেন জানতে চেয়েছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। তিনি খালেদা জিয়াকে এ ব্যাপারে এখনই জিজ্ঞাসাবাদ করতেও মন্ত্রিসভার দিকে ইঙ্গিত করেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশনে কেন্দ্রীয় ১৪ দল আয়োজিত ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘গণতান্ত্রিক উপায়ে নির্বাচিত একটি সরকার রয়েছে। যেখানে মন্ত্রিসভা রয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় রয়েছে। বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা রয়েছে। তারা কিছু জানলো না। অথচ জানলো খালেদা জিয়া। আর মন্ত্রিসভা এ নিয়ে তামাশা করছেন। এটা আমি আশা করিনি। তাই খালেদা জিয়াকে এখনই জিজ্ঞাসা করেন। এটা গভীর ষড়যন্ত্র।’

তিনি আরো বলেন, ‘রাজনীতিতে এখন একটি ক্রান্তিকাল চলছে। রাজনীতি হয় অসাম্প্রদায়িক শক্তির হাতে থাকবে, না হয় প্রতিক্রিয়াশীল সাম্প্রদায়িক শক্তির কাছে যাবে। এর বাইরে কিন্তু আর কেউ নেই। তাই প্রত্যেককে আরো সজাগ থাকতে হবে।’

বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে জামায়াতের ‘জন্মদাতা’ আখ্যা দিয়ে সুরঞ্জিত বলেন, ‘জামায়াত একটি সাম্প্রদায়িক শক্তি ও উগ্রবাদ শক্তি আজকে মিলে মিশে একাকার হয়ে গেছে। এর বিরুদ্ধে শেখ হাসিনা লড়াই করে যাচ্ছেন। প্রতিক্রিয়াশীল শক্তি ঐক্যবদ্ধ থাকবে। আর আমরা বসে থাকব, তা হয় না।’

সুশীল সমাজের সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের এই প্রবীণ নেতা বলেন, ‘বাংলাদেশ সামরিক সংবিধান দিয়ে পরিচালনা করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আন্দোলন করে করে ৭২-এর সংবিধানে গেছেন। আর এখন বলছেন, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা দিতে হবে। দ্বি-কক্ষ বিশিষ্ট করতে হবে। এরা কারা। তারা বলার কে? এদের কি কোনো সাংবিধানিক অধিকার রয়েছে। সুশীল বাবু পরীক্ষা দিন। আপনারা কেডা। ঘোড়ার চার পা থাকলে দৌড়াতে পারবে। আর যদি ঘোড়ার ৫ পা হয় তাহলে দৌড়াতে পারবে না।’

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আমির হোসেন আমুর সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য মোহম্মদ নাসিম, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আহমদ হোসেন, নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু, বাসদ আহ্বায়ক রেজাউর রশিদ খান, তরিকত ফেডারেশনের সভাপতি নজিবুল বসর মাইজভাণ্ডারি, জাতীয় পার্টির (জেপি) সাধারণ সম্পাদক শেখ শহীদুল ইসলাম প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

110 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ