নভেম্বর ১৪, ২০১৫ ৫:৫০ অপরাহ্ণ

ক্যামেরায় বন্দি স্তব্ধ প্যারিস- ফ্রান্সে নিহত ১২৮


প্যারিসের বিখ্যাত বাতাক্লঁ থিয়েটার হলে তখন চলছিল রক কনসার্ট। সেখানে হঠাৎই শত শত মানুষ হামলাকারীদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়লেন। জিম্মিদের একজন বেঞ্জামিন ক্যাজোনোভেস সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে এক পোস্টে তখনকার পরিস্থিতি সম্পর্কে বর্ণনা দিয়েছেন এভাবে, ‘ওরা একের পর এক জনকে জবাই করছে। অনেকেই ভেতরে আটকা পড়েছে।

বেঞ্জামিন অপর এক পোস্টে লেখেন, ‘জীবন্ত জবাই করা হচ্ছে…ভয়াবহ পরিস্থিতি, চারদিকে শুধু লাশ আর লাশ’।

হলের মূল ফটকে দাঁড়িয়ে জিম্মিদের ধরে ধরে জবাই করা হচ্ছিলো। নৃশংসতার জঘণ্যতম নাটকের দৃশ্যায়ন যেন চলছিলো সেখানে।

শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) স্থানীয় সময় দিনগত রাতে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে বাতাক্লঁ থিয়েটার হলে ও স্তেদে দ্য ফ্রান্স স্টেডিয়াম সংলগ্ন এলাকায় হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা এছাড়া সেন্ট ডেনিসেও হামলা চালায় বন্দুকধারীরা। এসব হামলায় নিহত হয়েছেন অন্তত ১২৮ জন।

জিম্মিদের মুক্ত করতে ফরাসী বাহিনী যখন থিয়েটার ভবনটি ঘিরে ফেলে, তিন আত্মঘাতী হামলাকারী বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। এ বিস্ফোরণে চার পুলিশ নিহত হন। এছাড়া পুলিশের গুলিতে নিহত হয় চতুর্থ হামলাকারী।

প্যারিসের ডেপুটি মেয়র প্যাট্রিক ক্লুগম্যান বলেছেন, শুধুমাত্র থিয়েটার ভবনেই নিহত হযেছেন ১ জন। এছাড়া রেস্টুরেন্ট ও ফুটবল স্টেডিয়ামের বাইরের হামলায় নিহত হয়েছেন আরও অনেকে। স্টেডিয়ামটি বাতাক্লঁ হল থেকে পাঁচ মাইল দূরে অবস্থিত।

শুক্রবার রাতেই হামলাকারীদের সবাইকে প্রতিহত করা সম্ভব হয়। এদের মধ্যে চারজন নিহত হয় থিয়েটার হলে। আর জার্মানি ও ফ্রান্সের মধ্যকার প্রীতি ফুটবল ম্যাচ শেষের কিছু পরই স্তেদে দ্য ফ্রান্স স্টেডিয়াম সংলগ্ন এলাকায় বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিহত হয় দু’জন।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত, ফরাসী বাহিনীর অভিযানে ১২৫ জিম্মিকে মুক্ত করা সম্ভব হয়েছে। এদিকে এই আইএস এই হামলার দায় স্বীকার করে নিয়েছে বলে খবর পাওয়া গেলেও তা নিশ্চিত হওয়া যায় নি। তবে ইসলামপন্থি উগ্র ধর্মীয় কোন গোষ্ঠিই যে এই হামলার সাথে জড়িত প্রাথমিকভাবে এমন ধারণা করা হয়েছে।

আতঙ্কিত এক লোক জড়িয়ে ধরছেন তার স্বজনকে

আতঙ্কিত এক লোক জড়িয়ে ধরছেন তার স্বজনকে

আহতদের সেবা দেয়া হচ্ছে

আহতদের সেবা দেয়া হচ্ছে

কনসার্টে অংশ নেয়া এক নারী বোমার শব্দে আতঙ্কিত হয়ে জড়িয়ে ধরছেন আরেকজনকে

কনসার্টে অংশ নেয়া এক নারী বোমার শব্দে আতঙ্কিত হয়ে জড়িয়ে ধরছেন আরেকজনকে

কনসার্টে অংশগ্রহণকারীদের পুলিশ প্রহরায় সরিয়ে নেয়া হচ্ছে

কনসার্টে অংশগ্রহণকারীদের পুলিশ প্রহরায় সরিয়ে নেয়া হচ্ছে

গুরুতর আহতদের নেয়া হচ্ছে অ্যাম্বুলেন্সে

গুরুতর আহতদের নেয়া হচ্ছে অ্যাম্বুলেন্সে

প্যারিসের রাস্তায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা

প্যারিসের রাস্তায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা

সন্দেহভাজন একজনকে তল্লাশী করছে পুলিশ

সন্দেহভাজন একজনকে তল্লাশী করছে পুলিশ

হামলার পর প্যারিসের রাস্তায় সেনা টহল

হামলার পর প্যারিসের রাস্তায় সেনা টহল

নিউজটি শেয়ার করুন

353 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ