মার্চ ৭, ২০১৬ ১১:৪৫ অপরাহ্ণ

সিলেটের মেজর জেনারেল আসহাব উদ্দীন কে পুনরায় নতুন মেয়াদে রাষ্ট্রদূত হিসেবে পুনর্বহাল করার দাবী


বিশেষ প্রতিনিধি :: সদ্য বিদায়ী কুয়েতের সফল রাষ্টদূত সিলেটের বিয়ানী বাজারের কৃতিসন্তান মেজর জেনারেল আসহাব উদদীনের বিরুদ্ধে একদিকে ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচার চললেও তাকে পুনরায় নতুন মেয়াদে রাষ্ট্রদূত হিসেবে পুনর্বহাল করার দাবী জোরালো হচ্ছে কুয়েতে।  বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কুয়েত রাজ্য শাখা এক সংবাদ সম্মেলন ও মতবিনিময় সভা থেকে এ তথ্য জানা যায়। গত ৪ মার্চ শুক্রবার রাত ৯ টায় কুয়েত সিটির হোটেল গুলশানে আওয়ামীলীগের সভাপতি সেকান্দর আলীর সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেনের সঞ্চালনায় এক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে কুয়েত আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা আতাউল গণি মামুন, রউফ মৌলা, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, জাতীয়পার্টির সহ সভাপতি ইসমাইল হোসেন, আওয়ামীলীগের  বিভিন্ন অংগসংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও জাতীয় পার্টি এবং জাসদ (ইনু) নেতৃবৃন্দরা।
বক্তারা বলেন গত ২৯ ফেব্র“য়ারী রাতে সিটির একটি হোটেলে আওয়ামীলীগের ব্যানারে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় উল্লেখ করে আওয়ামী নামধারী ৫ জন জামায়াত বিএনপি’র দালাল, সদ্য বিদায়ী সফল রাষ্ট্রদূতের বিরুদ্ধে তথ্যপ্রমাণ ছাড়া ষড়যন্ত্রমূলক অপপ্রচারে লিপ্ত হয়।  যা পুরোটাই ছিল উদ্দেশ্য প্রণোদিত। সেই মিথ্যা- বানোয়াট ষড়যন্ত্রমূলক অপপ্রচারের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কুয়েত শাখা সংবাদ সম্মেলন করে তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জ্ঞাপন করেন। সংবাদ সম্মেলনের পূর্বে আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, গুটি কয়েক পথভ্রষ্ট আওয়ামী নামধারী অস্তিত্বহীনদের কে সকল প্রবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে ওদেরকে সামাজিকভাবে প্রতিহত করতে হবে। তারা বলেন, জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের দূত হিসেবে একজন পরিক্ষিত সৈনিক ব্যতিত কাউকে রাষ্ট্রদূত হিসেবে প্রেরণ করার ইতিহাস নেই আওয়ামীলীগের। সে অবশ্যই সৎ নিষ্ঠাবান। সে যদি রাষ্ট্রদ্রোহিতা বা দূর্নীতিবাজ হিসেবে কোন প্রমাণ থাকে তাহলে আওয়ামীলীগ পরিবারের লোক হলেও সরকারের প্রধানমন্ত্রী তার অভিযোগ শুনে ব্যবস্থা নিবেন। তার প্রমান হিসেবে বক্তারা বলেন, ইউরোপের একজনের রাষ্ট্রদূত কে প্রত্যাহার করেছিলেন গেল তিনমাস পূর্বে শেখ হাসিনা। কিন্তুু তা না করে রাষ্ট্রদূতের মেয়াদ শেষ করে দেশে প্রত্যাবর্তনের ২৫ দিন পর সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেন। শেখ হাসিনার নিয়োগ করা রাষ্ট্রদূতের বিরুদ্ধে অপপ্রচার জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করার সামিল। ওরা আওয়ামী নামধারী রাতে বসে মিটিং করে জামায়াত-বিএনপি’র সাথে দিনে সাজে নব্য আওয়ামীলীগ।
বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা সদ্য বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের মহতী কাজের উদাহরণ দিতে গিয়ে বলেন রাষ্টদূত মেজর জেনারেল আসহাব উদদীন (এনডিসি, পিএসসি) একজন আদর্শবান, দেশপ্রেমিক। উপস্থিত বক্তারা বলেন, কুয়েতে এই প্রথম কোনো রাষ্ট্রদূতের বিদায়কালে হৃদয় বিদারক দৃশ্যের সূচনা হয়। কান্নাজড়িত কণ্ঠে আবেগ-আপ্লুত জনতা জড়িয়ে ধরে বিদায় দেন তাদের প্রিয় রাষ্ট্রদূতকে। এমন দৃশ্য এর আগে আর কোনো রাষ্ট্রদূতের বিদায়কালে দেখা যায়নি।
কুয়েতের সরকারী প্রতিষ্টানেও বাংলাদেশের সম্পৃক্ততাও করে নিয়েছিলেন।  রেডিও কুয়েত বাংলা সার্ভিসকে টিভিুতে উনার মেধা ও অক্লান্ত শ্রম দিয়ে কাজ করেছিলেন, যা কিনা ছিলো স্বপ্নিল। উনার ধ্যানে ছিলো বাংলাদেশী শিশুদের বাংলা শিখতে হবে, জানতে বাংলাদেশের ইতিহাস, সেই লক্ষ্যে মনিং গ্লোরী বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল গড়ার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেন তিনি।  এবং কুয়েতে অবস্থানরত সকল বাঙ্গালীদের  সহযোগিতায় মরুর বুকে একটি বাংলাদেশী স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন এই বীর বাঙ্গালী। রাষ্টদূত মেজর জেনারেল আসহাব উদদীন কর্মেই ছিল যার পরিচয়।
এদিকে নেতৃবৃন্দরা বর্তমান বাংলাদেশ সরকারের কাছে আকুল আবেদন জানিয়ে বলেন, যদি সরকার সত্যিকার্থে কুয়েত প্রবাসীদের সার্বিক কল্যাণ আশা করেন, তবে যেনো মেজর জেনারেল আসহাব উদ্দিন এনডিসি, পিএসসি (অবঃ) কে পুনরায় নতুন মেয়াদে কুয়েতে রাষ্ট্রদূত হিসেবে পুনর্বহাল করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

1129 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ