মার্চ ২০, ২০১৭ ৯:০২ পূর্বাহ্ণ

দৈনিক জালালাবাদ এর প্রতিনিধি সম্মেলন


স্টাফ রিপোর্টারঃ বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ১৮ মার্চ অনুষ্ঠিত হয়েছে দৈনিক জালালাবাদের প্রতিনিধিদের নিয়ে দিনব্যাপি ‘প্রতিনিধি সম্মেলন’। জালালাবাদ পরিবারের এই প্রাণবন্ত সম্মেলনে সিলেট বিভাগের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা ও প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা কর্মেেত্র তাদের কাজের অভিজ্ঞতা বর্ননা করে জালালাবাদকে আরো এগিয়ে নেয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন।
প্রতিনিধিরা বলেছেন, সিলেটের মাটি ও মানুষ তথা দেশের সমস্যা ও সম্ভাবনায় তারা তাদের মেধা যোগ্যতাকে কাজে লাগিয়ে উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির সাথী হতে চান। জালালাবাদ কর্তৃপও তাদের বক্তব্যে বলেছেন, তারা প্রতিনিধিদের চাওয়া-পাওয়ার মূল্যায়ন করতে চান। এজন্য সময়ের প্রয়োজনে দেশ ও জাতির জন্য জালালাবাদের সেবার মান বৃদ্ধিতে আরো অবদান রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন সম্মেলনে।
শনিবার নগরীর একটি অভিজাত হোটেলের সম্মেলন কে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বক্তারা বলেন, দৈনিক জালালাবাদ সিলেটে অসংখ্য সাংবাদিকের জন্ম দিয়েছে। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করে সিলেটবাসীর হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছে। সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠায় দৈনিক জালালাবাদ জনগণকে সেবা দেয়ার মধ্য দিয়ে সিলেটবাসীর মুখপত্রে পরিণত হয়েছে। সংবাদ পরিবেশনের েেত্র জালালাবাদ এখন একটি পাইওনিয়ার উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, আগামী দিনের পথচলায় শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখার পাশাপাশি জালালাবাদের অহংকারের জায়গা পুনরুদ্ধার করতে হবে। এ জন্য সমাজ, দেশ ও মানুষের জীবন চিত্র উপস্থাপনে জালালাবাদের সাংবাদিকদের যোগ্যতার প্রমান দিতে হবে, স্বচ্ছতার প্রমাণ দিতে হবে।
দৈনিক জালালাবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আজিজুল হক মানিক এর সভাপতিত্বে এবং জালালাবাদ ম্যানেজমেন্ট কমিটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম বাবুল এর পরিচালনায় সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে দৈনিক জালালাবাদের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও জালালাবাদ সিন্ডিকেটের ভাইস চেয়ারম্যান, সিলেট প্রেসকাবের সাবেক সভাপতি মুকতাবিস্-উন-নূর বলেন, সমাজ একা বদলানো সম্ভব নয়। এজন্য সব দল ও মতের মানুষের একত্রে কাজ করতে হবে। এই কাজে প্রশাসন ও সাংবাদিকদের মধ্যে ভালো সম্পর্ক তৈরি করতে হয়। তিনি অতীতের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করতে গিয়ে বলেন, ভালো সম্পর্কের কারনে এখনো দেশের ও দেশের বাইরের নানান প্রতিষ্ঠানের ও বিশেষ ব্যক্তিদের সাথে আমাদের যোগাযোগ হয়, তারাও খোঁজেন। তিনি বলেন, জালালাবাদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার আছে যে এটি একটি বিশেষ গোষ্ঠির পত্রিকা। কিন্তু কেউ পত্রিকার মাধ্যমে এই অপপ্রচারের সত্যতা প্রমাণ করতে পারবেন না। জালালাবাদ অতীতেও কাজের মধ্য দিয়ে শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করেছে এখনও করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। প্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, অর্থ দিয়ে বা নিয়ে নয়, সাংবাদিকদের ব্যক্তিত্ব দিয়ে সম্পর্ক বৃদ্ধি করতে হবে। এজন্য স্বচ্ছতার প্রমাণ দিতে হয়। এ কাজ করলে রাজনীতিবিদসহ সবার সাথে সম্পর্ক ভালো হয়।
স্বাগত বক্তব্যে জালালাবাদ ম্যানেজমেন্ট কমিটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম বাবুল বলেন, জালালাবাদ পত্রিকা সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার ল্েয কাজ করে যাচ্ছে। এখান থেকে অনেক সাংবাদিক সিলেট ও জাতীয় পর্যায়ে প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন। আগামী দিনেও সিলেটের সকল শ্রেণীর মানুষের আশা-আকাঙ্খার প্রতিফলন কিভাবে ঘটানো যায় সেই ল্েয কাজ চালিয়ে যাবে পত্রিকাটি। এেেত্র সবাইকে পত্রিকার পাতায় সমানভাবে গুরুত্ব দিয়ে উপস্থাপন করতে চায়।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জালালাবাদ সিন্ডিকেটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বীর মুক্তিযোদ্ধা মতিউর রহমান সবাইকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, পথ চলতে বাধা থাকবেই। এজন্য সবাই সম্মিলিতভাবে কাজ করলে সফল হওয়ার েেত্র কোন বাধাই থাকবে না। তিনি জালালাবাদের অগ্রযাত্রায় সবাইকে আরো মনোযোগী হয়ে কাজ করার আহবান জানান।
দৈনিক জালালাবাদের নির্বাহী সম্পাদক আবদুল কাদের তাপাদার বলেন, জালালাবাদ সিলেটের একটি পাইওনিয়ার (অগ্রগামী) সংবাদপত্র। জালালাবাদ বিভাগজুড়ে পাঠকদের বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করে তাদের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছে। কাজের মধ্য দিয়ে অর্জিত হয়েছে গৌরব ও অহংকারের জায়গা। সেই অহংকারের স্থানকে উজ্জলতর করতে হবে। সমাজ, দেশ ও মানুষের জীবন চিত্র উপস্থাপনে জালালাবাদের সাংবাদিকদের আরো দতার প্রমাণ দিতে হবে। লেখনির মাধ্যমে মানবিকতা ও দেশের অর্জনের পথকে তুলতে ধরতে হবে মানুষের কাছে।
জালালাবাদের সহকারী সম্পাদক, কবি ও সাংবাদিক নিজাম উদ্দীন সালেহ সম্মেলনে জেলা, উপজেলা প্রতিনিধিসহ সকল সাংবাদিকদের বিশেষভাবে তরুণ সাংবাদিকদের সাংবাদিকতায় প্রকৃত সাফল্য অর্জনের জন্য আন্তর্জাতিক ভাষা ইংরেজী ব্যবহারে সতর্কতা ও দতা অর্জনের আহবান জানান। এ প্রসঙ্গে তিনি উল্লেখ করেন, ইদানিং অধিকাংশ বাংলা সংবাদপত্রের সংবাদে প্রায়ই ভুলভাবে ইংরেজী শব্দ ব্যবহৃত হচ্ছে।
জালালাবাদ ম্যানেজমেন্ট কমিটির সদস্য ডা. হোসাইন আহমদ বলেন, দৈনিক জালালাবাদের দীর্ঘ পথপরিক্রমায় রয়েছে গৌরবোজ্জল ইতিহাস। সেই ধারাবাহিকতায় বিশেষ কারো প হয়ে নয়, জালালাবাদ সকল দল ও মতের বক্তব্য নিরপেভাবে প্রচার করতে চায়।
সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন জালালাবাদ ম্যানেজমেন্ট কমিটির সদস্য আব্দুল্লাহ আল মুনিম, নির্বাহী কর্মকর্তা আহমদ ফায়সাল, সিলেট সংস্কৃতি কেন্দ্রের পরিচালক জাহেদুর রহমান চৌধুরী। উন্মুক্ত আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রতিনিধিরা জালালাবাদের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাসের সোনালি দিনের স্মৃতি ও দৃপ্ত পদচারনার কথা ব্যক্ত করেন।
জালালাবাদের কুলাউড়া প্রতিনিধি সিনিয়র সাংবাদিক এম শাকিল রশীদ চৌধুরী বলেন, ১৯৭৪ সাল থেকে সাংবাদিকতার জগতে রয়েছি। জালালাবাদের যাত্রালগ্ন থেকে কাজ করছি, দেশ ও মানুষের জন্য আমি সব সময় কাজ করতে প্রস্তুত রয়েছি।
জকিগঞ্জ প্রতিনিধি এখলাছুর রহমান কাজের অভিজ্ঞতা বর্ননা করতে গিয়ে বলেন, ভালো কাজ করলে কোন বাধাই বাধা হয়ে থাকেনা। বড়লেখা প্রতিনিধি আব্দুর রব বলেন, সত্য ও ন্যায়ের জন্য ঝুঁকি নিতে হয়। জালালাবাদের সত্যনিষ্ঠতা সবার কাছে গ্রহনযোগ্য উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই গ্রহনযোগ্যতা আরো এগিয়ে নিতে হবে এবং ধরে রাখতে হবে। গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি আব্দুল আহাদ বলেন, জালালাবাদ এই অঞ্চলের মানুষের মুখপত্র হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি আগামী দিনে মফস্বলের সংবাদ গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশের মাধ্যমে সবার দোরগোড়ায় জালালাবাদকে পৌঁছে দেয়ার আহবান জানান।
বালাগঞ্জ প্রতিনিধি শাহাব উদ্দিন শাহিন জালালাবাদের অতীত স্মৃতি বর্ননা করে আগামী দিনে পত্রিকার সম্ভাবনার বিভিন্ন দিক তুলে ধরে বক্তব্য দেন। সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক জালালাবাদের সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার মো. মুহিবুর রহমান, স্টাফ রিপোর্টার খালেদ আহমদ, স্টাফ রিপোর্টার কামরুল ইসলাম, স্টাফ রিপোর্টার ও অনলাইন ইনচার্জ মুনশী ইকবাল, স্টাফ রিপোর্টার আবু বকর সিদ্দিক, স্টাফ ফটোগ্রাফার হুমায়ুন কবির লিটন, জেনারেল ম্যানেজার শফিকুর রহমান, সার্কুলেশন ম্যানেজার রশীদ আহমদ তাপাদার, বিজ্ঞাপন ব্যবস্থাপক নেছার আহমদ। আলোচনায় অংশ নেন বিশ্বনাথ প্রতিনিধি কাজী মো. জামাল উদ্দিন, ছাতক প্রতিনিধি আমিনুল ইসলাম হিরন, জামালগঞ্জ প্রতিনিধি তৌহিদ চৌধুরী প্রদীপ, রাজনগর প্রতিনিধি শংকর দুলাল দেব, দণি সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি মহি উদ্দিন মহিম, শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি সৈয়দ সায়েদ আহমদ, কমলগঞ্জ প্রতিনিধি প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ, ওসমানীনগর প্রতিনিধি মুহিব হাসান সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি মো. সোহেল আলম। উপস্থিত ছিলেন, জৈন্তাপুর প্রতিনিধি গোলাম সরওয়ার বেলাল, দিরাই প্রতিনিধি ইমরান হোসাইন, দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি বজলুর রহমান, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি মো. আব্দুল ওয়াদুদ, দণি সুরমা প্রতিনিধি আশরাফুল ইসলাম ইমরান, তাহিরপুর প্রতিনিধি জাহাঙ্গির আলম ভূইয়া। এছাড়াও সম্মেলনে নতুন নিয়োগ পাওয়া বিভিন্ন জেলা, উপজেলা ও কলেজ প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

489 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ