মার্চ ৩, ২০১৬ ৩:০০ অপরাহ্ণ

বিজয় সাজে কপালের টিপ


বাঙালি নারীর সাজে আদিকাল থেকে জড়িয়ে আছে রঙ বাহারি টিপ। আধুনিকতার ছোঁয়ায় অনেক কিছু বিলিন হয়ে গেলেও টিপের কদর কমেনি এতটুকু। উৎসব আমেজে বাঙালি আবহে টিপ না হলে সাজ থেকে যায় অপূর্ণ। বর্ষ পরিক্রমায় নানা উৎসবে পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে টিপের রঙে থাকে বিশিষ্টতা। বিজয় উৎসবও এর ব্যতিক্রম নয়। এই দিনে পোশাকে যেমন থাকবে লাল-সবুজের সমারোহ, তেমনি টিপ থাকবে মানানসই। আজ জেনে নেয়া যাক, বিজয় দিবসে আপনার কপালে শোভা পেতে পারে কেমন টিপ।

– বিজয় দিবসের আনন্দে সাজবে পুরো বাঙালি মন। লাল সবুজের পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে নারীদের কপালে শোভা পাবে স্পষ্ট একটি টিপ। তবে সেই টিপের রঙ অবশ্যই লাল বা সবুজ হতে হবে। আলপনা টিপের সঙ্গে পাথর মিলিয়েও পরতে পারেন। যাতে আপনার টিপের উজ্জ্বলতা আরও বেশি বাড়ে।

– অনেকেই আছেন সম্পূর্ণ পোশাকটিই পরবেন সবুজ এবং বুকের ওপর থাকবে লাল গোলাকার। তারা কপালে বড় লাল টিপ পরতে পারেন। আবার কারো পোশাকে লালের পরিমান বেশি থাকলে কপালে সবুজ টিপ বেশি মানাবে।

– এই দিনে যেকোনো সাজের সঙ্গে বড় একটি টিপ পরতেই পারেন। এক্ষেত্রে বড় একটি লাল টিপের ওপর নিচের দিকে অপেক্ষাকৃত ছোট একটি সবুজ টিপ লাগতে পারেন। তাহলে লাল সবুজের বিজয়ের দিনে আপনার সাজে টিপটা মানিয়ে যাবে সহজে।

– অধিকাংশ সময় আপনার সাজের বিশেষ অনুষঙ্গ হয় টিপ। কিন্তু বিশেষ উৎসবে টিপের বিশিষ্টতা দিতে অবশ্যই গাঢ় রঙের বড় টিপই মানানসই। তাই লাল পরুন আর সবুজ পরুন তা যেন হয় গাঢ় রঙের।

– বিজয় দিবসের সাজে কপালে দুই ভ্রুর মাজখানে কুমকুম দিয়ে চারকোনা একটি সবুজ পতাকা আঁকতে পারেন। ঠিক তার মাঝখানে ছোট একটি লাল টিপ দিয়ে দিতে পারেন। দেখবেন আপনার সাজে একটা আলাদা আবহ সৃষ্টি করছে।

– যাদের মুখমণ্ডল অপেক্ষাকৃত চিকন লম্বা, তারা মাঝারি আকারের টিপ পরলে ভালো দেখাবে। টিপ খুব বেশি বড় হলে মুখের সঙ্গে বেমানান লাগতে পারে।

– গোল চেহারার অধিকারীরা একটু লম্বাটে টিপ পরলেও ভালো দেখাবে। তাছাড়া যাদের মুখমণ্ডল একটু মোটা বা চ্যাপ্টা ধরনের তারা নিঃসঙ্কোচে বড় একটি টিপ কপালের ঠিক মাঝখানে লাগাতে পারেন।

– টিপ বাছায়ের সময় অবশ্যই তার আঠার দিকে খেয়াল রাখবেন। বাজারে সব রকম টিপ পাওয়া যায়। একটু খুঁজে দেখলে পেয়ে যাবেন মনের মতো টিপ। এক্ষেত্রে আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে যেন প্রতিটি টিপের পেছনে যথেষ্ট আঠা থাকে। যেনতেন টিপ কিনলে দ্রুত কপাল থেকে পড়ে যাবে।

– অনেক সময় টিপের আঠার কারণে কপালে র‌্যাশ দেখা দেয়। সেই সমস্যা থেকে বাঁচার জন্য টিপ খোলার পরেই বেবি অয়েল বা লোশন দিয়ে আঠা মুছে ফেলুন। তাহলে আর সমস্যা হবে না।

বাজারে আপনার জন্য নানান রকমের টিপের পসরা রয়েছে। এসব থেকে আপনাকেই নিজের উপযোগী টিপ বেছে নিতে হবে। তবে তার আগে টিপের দরদাম জানাও জরুরি। বাজার ঘুরে দেখা যায় সাধারণ ছোট টিপের পাতা ১০ টাকা থেকে ২০ টাকার মধ্যে। আর বড় টিপের পাতা পাবেন ১০ থেকে ৫০ টাকার মধ্যে। পাথরের একেকটি টিপ কিনতে লাগবে ৫০ থেকে ৮০ টাকা।

নিউজটি শেয়ার করুন

740 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ