ডিসেম্বর ২২, ২০১৮ ১১:০০ পূর্বাহ্ণ

সুখবর’ নিয়ে আসছেন প্রধানমন্ত্রী


সিলেটে আসছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা। মাজার জিয়ারত ও নির্বাচনী জনসভায় যোগদানের লক্ষ্যে আজ শনিবার তিনি সিলেটে আসছেন। এবারের সফরে নির্বাচনী আচরণবিধির কারণে আনুষ্ঠানিক কোন প্রতিশ্রুতি না থাকলেও শেখ হাসিনার সিলেট সফরে সিলেটবাসীর সুখবর থাকছে বলে জানিয়েছেন সিলেট আওয়ামী লীগের নেতারা।

সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অতীতে যতবার সিলেটে এসেছেন ততবারই সিলেটবাসীকে কোন না কোন সুখবর দিয়ে গেছেন, একই সাথে যত দ্রুত সম্ভব তার বাস্তবায়ন করার চেষ্টাও করেছেন। এর ধারাবাহিকতায় এবারও তিনি সিলেটে এসে আনুষ্ঠানিক কোন প্রতিশ্রুতি দেবেন এমনটা সকলের প্রত্যাশা থাকলেও এবার যেহেতু তিনি নির্বাচনী জনসভায় যোগদানের জন্য সিলেটে আসছেন সুতরাং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনী আচরণবিধির কারণে আনুষ্ঠানিক কোন প্রতিশ্রুতি দিতে পারবেন না। তবে শেখ হাসিনার সিলেট আগমন সব সময়ই সিলেটবাসীর জন্য সুখবর। কারণ শেখ হাসিনা সব সময়ই সিলেটের উন্নয়নে বিশেষ দৃষ্টি দেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘অতীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিলেট আগমনের মধ্য দিয়ে ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের রানওয়ে সম্প্রসারণের মতো বড়ো একটি উন্নয়নের দেখা পেয়েছি যার ফলে এখন আন্তর্জাতিক বিমানগুলো ঢাকায় না গিয়ে সরাসরি সিলেটে অবতরণ করতে পারে। আমরা সিলেটে একটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় অনুমোদন পেয়েছি, ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের চার লেন প্রকল্পের অনুমোদন পেয়েছি। সিলেটের উন্নয়নে এরকম অনেক কাজের প্রকল্প অনুমোদনসহ একাধিক কাজের বাস্তবায়নের কাজও ইতোমধ্যে চলছে। আর এসব উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে পুনরায় নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে জয়ী করার জন্য জনগণের কাছে ভোট চাইতেই তিনি সিলেটে আসছেন।

এদিকে দলীয় সভানেত্রীর আগমন উপলক্ষে সিলেটজুড়ে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। সিলেট আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের পক্ষ থেকে একাধিক আনন্দমিছিলসহ জনসভাকে জনসমুদ্রে পরিণত করতে গ্রহণ করা হয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি।

সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদরউদ্দিন আহমদ কামরান বলেন, দলীয় প্রধান সিলেট এলে এমনিতেই নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনা দেখা দেয়। এবার নির্বাচনী মৌসুম হওয়ায় সেই উদ্দীপনা আরও বহুগুণ বেড়ে গেছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সফরকে সফল করতে ও জনসভাকে জনসমুদ্রে পরিণত করতে সবধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রীর সফরকে নিশ্চিদ্র করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। নগরজুড়ে নিরপত্তাবলয় গড়ে তোলা হয়েছে।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (গণমাধ্যম) জেদান আল মুসা জানান, ‘প্রধানমন্ত্রীর সিলেট সফরকে নিশ্চিদ্র করতে মহানগরে পুলিশের পক্ষ থেকে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর সিলেট সফর ঘিরে কয়েক স্থরের নিরাপত্তা বেস্টনি গড়ে তোলা হয়েছে। একই সাথে প্রধানমন্ত্রীর জনসভাস্থলসহ হযরত শাহজালাল (র.), শাহপরান (র.) ও গাজী বুরহান উদ্দিনের মাজার এলাকায় সিসি ক্যামেরার বিশেষ ব্যবস্থা কর হয়েছে। এমনকি গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন মোড়ে মোড়েও সিসি ক্যামেরা লাগানো হয়েছে বলে জানান মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত এ উপ-পুলিশ কমিশনার।

অপরদিকে দলীয় সভানেত্রীর সিলেট আগমনে নৌকার গণজোয়ার আরো বেগবান হবে এমনটা প্রত্যাশা সিলেট-১ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী ড. একে আব্দুল মোমেনের। তিনি বলেন, সিলেটে নৌকার পক্ষে যে জোয়ার সৃষ্টি হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর সফরের মধ্য দিয়ে তা আরও বেগবান হবে। তাঁর নির্দেশনা পেয়ে নেতাকর্মীরা আরও বিপুল উৎসাহে প্রচার-প্রচারণায় নামবে।

তবে দলীয় অভ্যন্তরীণ বিভেদের বিষয় অস্বীকার করলেও শেখ হাসিনার আগমন সকলকে আরো অনুপ্রাণিত করবে এমনটাই প্রত্যাশা আওয়ামী লীগ নেতাদের।

এ ব্যাপারে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আজাদুর রহমান আজাদ বলেন, সিলেট আওয়ামী লীগে কোন বিভেদ নেই। নৌকা মার্কার জয়ের লক্ষ্যে সিলেট আওয়ামী লীগ একাট্টা। তবে সভানেত্রীর এ আগমন সকল নেতাকর্মীকে আরো অনুপ্রাণিত করবে। বিজয়ের এ মাসে আরো একটি বিজয় আনতে সকলে অনুপ্রাণিত হবে।

তিনি আরো বলেন, যেহেতু এটি একটি নির্বাচনী সফর, তাই নির্বাচনী আচরণবিধির বিষয়টি মাথায় রেখেই আমরা সকল রকম প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। এমনকি জনসভায় যে মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে এটিও ২০ ফুটের নিচে করা হয়েছে। তাই এখানে সিলেটবাসীর জন্য আনুষ্ঠানিক কোন প্রতিশ্রুতি দেয়ার সুযোগ না থাকলেও অতীতের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রম তোলে ধরেই নৌকা মার্কায় ভোট চাইবেন তিনি।

এদিকে সিলেটের সরকারি আলীয়া মাদ্রাসা মাঠে সভামঞ্চ নির্মাণসহ আনুষঙ্গিক সকল কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। শুক্রবার বিকালে মাদ্রাসা মাঠে গিয়ে দেখা যায়, সকল প্রস্তুতি প্রায় শেষ। মঞ্চ নির্মাণও প্রায় শেষ। চলছে মাইক সেটিং এর কাজ। জনসভাস্থলের সকল কার্যক্রম পরিদর্শনও করেছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতারা। সকাল হলেই জনসভাস্থল জনসমুদ্রে পরিণত হতে থাকবে এমনটাই প্রত্যাশা সিলেট আওয়ামী লীগ নেতাদের।

প্রসঙ্গত, আজ সকাল ১০টায় বিমানযোগে সিলেট আসবেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা। সিলেটে এসে নির্বাচনী জনসভায় ভাষণ দেবেন তিনি। সিলেটে এসে হযরত শাহজালাল (র.), শাহপরান (র.) ও গাজী বুরহান উদ্দিনের মাজার জিয়ারত করবেন তিনি। এর পর বেলা ২টায় সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের আয়োজনে আলীয়া মাদ্রাসা মাঠের নির্বাচনী জনসভায় বক্তব্য রাখবেন তিনি।


42 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ