জানুয়ারি ১২, ২০১৬ ৮:৪৪ অপরাহ্ণ

মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কটাক্ষ সহ্য করা হবে না – প্রধানমন্ত্রী


মহান মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করে কোনো কটাক্ষ সহ্য করা হবে না। যারা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করে তাদের ইতিহাসের আস্তাকুড়ে নিক্ষেপ করা হবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সরকারের দুই বছর পূর্তি উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে ভাষণে তিনি এ মন্তব্য করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘একটি দল ও তার নেত্রী মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সংখ্যা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন। এ ধরনের মন্তব্য করে তিনি ৩০ লক্ষ শহীদদের অপমান করেছেন। আমি এ ধরনের ঘৃণ বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানাই। যারা ইতিহাস বিকৃত করে তাদের ইসিহাসের আস্তকুড়ে নিক্ষেপ করা হবে।’

সরকার প্রধান বলেন, ‘দলীয়ভাবে পৌরসভা নির্বাচন অতীতের যেকোনো নির্বাচন থেকে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ হয়েছে। জনগণকে ধন্যবাদ জঙ্গি ও বোমাবাজদের ভোটের মাধ্যমে প্রত্যাখ্যান করেছে।’

তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর কর্মকর্তাদের ঝুঁকি ভাতা দেয়া হচ্ছে। বিএনপি জোট সরকার তাদের আমলে ২৭টি পাটকল বন্ধ করেছিল। আমরা সবগুলোই চালু করেছি। আমরা মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের পরিবারকে ভাতা প্রদান করছি। এতে করে প্রতি মাসে ২১০ কোটি টাকার ভাতা প্রদান করছে এ সরকার।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের সরকার হিজড়া সম্প্রদায়কে স্বীকৃতি প্রদান করেছে। অনগ্রসর জনগণকে আর্থ উন্নয়নের সঙ্গে এগিয়ে নিতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। দুর্নীতি দমন কমিশনকে শক্তিশালী। তারা স্বাধীনভাবে কাজ করছে। সাংবাদিক কল্যাণে এ পর্যন্ত ৩ কোটি ৮০ লাখ টাকা বিতরণ করা হয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ আর্থ-সামাজিক খাতে অভুতপূর্ব সাফল্য অর্জন করেছে। ষষ্ঠ পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা বাস্তবায়ন শেষ পর্যায়ে। সপ্তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পানা হাতে নিয়েছি। অচিরেই ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন করবো। শিশু মৃত্যুর হার কমে গেছে। নারী ক্ষময়তানে বাংলাদেশ বিশ্বে রোল মডেল হয়েছে।’

নিউজটি শেয়ার করুন

285 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ