জানুয়ারি ১২, ২০১৭ ৮:৫৩ অপরাহ্ণ

বাধা-বিপত্তি অতিক্রম করে উন্নয়নের মহাসড়কে দেশ


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ দীর্ঘ ৮ বছর দায়িত্ব পালন করে ৯ম বছরে পড়েছে। তার জন্য আপনাদের কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। তিনি বলেন, বাংলাদেশ সব বাধা দূর করে আজ বিশ্বব্যাপী উন্নয়নের মডেল। আজকের বাংলাদেশ আর ৮ বছরের আগের বাংলাদেশ এক নয়। বিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে দেশ। সব বাধা-বিপত্তি অতিক্রম করে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের মহাসড়কে।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে টানা দ্বিতীয় মেয়াদে সরকারের ৩ বছর পূর্তি উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমাদের লক্ষ ২০২১ সালের মধ্যে দারিদ্র্যের হার ১৫/১৬ শতাংশে নামিয়ে আনা। বাংলাদেশের অর্থনীতি আজ শক্ত ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে আছে। খাদ্য ঘাটতির দেশ খাদ্য উদ্বৃত্তের দেশে পরিণত হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী ভাষণে বলেন, আজ ১২ই জানুয়ারি। ২০১৪ সালের ৫ই জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জনগণের বিপুল ম্যান্ডেট নিয়ে আজকের দিনে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আমি তৃতীয়বারের মত শপথ গ্রহণ করি।
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকারের বর্তমান মেয়াদের তৃতীয় বছর পূর্তিতে দেশবাসীকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

‘আমি গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। যিনি ২৪ বছরের দীর্ঘ রাজনৈতিক সংগ্রাম, জেল-জুলুম এবং নির্যাতন-নিপীড়ন সহ্য করে আমাদের উপহার দিয়ে গেছেন স্বাধীন-স্বার্বভৌম বাংলাদেশ। স্মরণ করছি ৩রা নভেম্বর জেলখানায় নিহত জাতীয় চারনেতা- সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দিন আহমেদ, ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলী এবং এ এইচ এম কামারুজ্জামানকে। শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি মহান মুক্তিযুদ্ধের ত্রিশ লাখ শহীদকে। যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, স্বজন হারানো পরিবার ও একাত্তরে নির্যাতিত ২ লাখ মা-বোনের প্রতি জানাচ্ছি আন্তরিক সমবেদনা। মুক্তিযোদ্ধাদের জানাই সালাম। গভীর বেদনার সঙ্গে স্মরণ করছি ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্টের ঘৃণ্য হত্যাকা-ের শিকার আমার মা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব, আমার তিন ভাইÑ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল, লেফটেন্যান্ট শেখ জামাল ও দশ বছরের শেখ রাসেল- কামাল ও জামালের নবপরিণীতা স্ত্রী সুলতানা ও রোজী, বঙ্গবন্ধুর একমাত্র সহোদর শেখ নাসের, বঙ্গবন্ধুর সামরিক সচিব ব্রিগেডিয়ার জামিলসহ সেই রাতের সকল শহীদকে।’

‘স্মরণ করছি, ২০০৪ সালের ২১শে আগস্টের গ্রেনেড হামলায় নিহত আওয়ামী লীগ নেত্রী আইভী রহমানসহ শহীদ ২২ নেতা-কর্মীকে। স্মরণ করছি বিএনপি-জামাত জোট সরকারের সময় নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া, আওয়ামী লীগ নেতা আহসানউল্লাহ মাস্টার, মঞ্জুরুল ইমাম, মমতাজউদ্দিনসহ ২১ হাজার নেতা-কর্মীকে। স্মরণ করছি সম্প্রতি নিহত গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের সংসদ সদস্য মনজুরুল ইসলাম লিটন-কে। দশম সংসদের যে সকল সংসদ সদস্য ইন্তেকাল করেছেন তাঁদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাই।’

নিউজটি শেয়ার করুন

247 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ