আগস্ট ১৫, ২০১৮ ১১:৩০ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশের কিশোরীদের ফাইনালে ওঠার লড়াই


বাংলাদেশ-ভুটান। ফুটবলে দেশ দুটির লড়াই এলেই কাঁপুনি ধরে সবার বুকে। মনে পড়ে ২০১৬ সালে থিম্পুতে জাতীয় দলের সেই হারের দুঃসহ স্মৃতি। তবে লড়াইটা যদি হয় বয়সভিত্তিক কিংবা নারী ফুটবলে, তখন সবাই আশায় বুক বাঁধে। ভরসা পায়। আত্মবিশ্বাসে টইটুম্বুর হয় ফুটবলমোদীদের বুক। তেমনই আশা জাগানিয়া এক লড়াইয়ে বৃহস্পতিবার পাহাড়ী দেশটির মেয়েদের মুখোমুখি হবে লাল-সবুজ কিশোরীরা।

লক্ষ্য একটাই-জিতে ফাইনালে যাওয়া। ম্যাচটা সেমিফাইনাল। জিতলে বাংলাদেশ পৌঁছে যাবে শিরোপা ধরে রাখার শেষ মঞ্চে। হারলে স্বপ্ন ভঙ্গ। দ্বিতীয় বাক্যটি অবশ্য মাথায় আনতে চাইবে না কেউ। কারণ, ভুটানের বিরুদ্ধে মেয়েদের ফুটবলে বাংলাদেশই যে ফেভারিট।

এটি সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী ফুটবলের দক্ষিণ এশিয়ার দ্বিতীয় আসর। এই তো ৮ মাস আগে ঢাকায় বসেছিল প্রথম আসর। কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোহাস্মদ মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে ফাইনালে ভারতকে হারিয়ে দক্ষিণ এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের নিশান উড়িয়েছিল বাংলাদেশের কিশোরীরা। এবার সেই শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখার চ্যালেঞ্জ বাংলাদেশের।

৬ জাতির টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত ও নেপাল। খেলা হচ্ছে ভুটানের রাজধানী থিম্পুর চাংলিমিথাং স্টেডিয়ামে। স্বাগতিকরা প্রতিপক্ষ-একটা চাপ থাকতেই পারে গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যদের। তবে গ্রুপ পর্বে বাংলাদেশের মেয়েরা যে দাপুটে ফুটবল খেলেছে, তাতে ভুটানের মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর কথা নয় বাংলাদেশের সামনে। খেলাটা ফুটবল আর প্রতিপক্ষ স্বাগতিক বলেই যা একটু ভয়!

এ টুর্নামেন্টের প্রথম আসরে ভুটানের জালে ৩ গোল দিয়েছিল বাংলাদেশের মেয়েরা। ওই ম্যাচে জোড়া গোল করা আঁখি খাতুন আছেন এই দলেও। আছেন অন্য গোলটি করা সাজেদাও। আর মারিয়া, মনিকা, তহুরা আর শামসুন্নাহাররা তো আছেনই। এমন একটি ধারালো দলের কাছে ভুটান কাটা পড়বে, সে প্রত্যাশা তো করাই যায়।

তবে গ্রুপ পর্বে ভারতের বিরুদ্ধে ভুটানের ম্যাচটি স্বাগতিকদের শক্তির চিত্র কিছুটা ফুটিয়ে তুলেছে। গতবারের রানার্সআপ ভারতকে জিততে বেশ বেগ পেতে হয়েছে ওই ম্যাচে। মাত্র ১-০ গোলে হেরে গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে সেমিফাইনালে উঠেছে ভুটান। আরেক ম্যাচ স্বাগতিকরা ৬-০ গোলে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কাকে।

প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ১৪-০ গোলে জয়ের পর নেপালকে বাংলাদেশ হারায় ৩-০ গোলে। ডিসেম্বরের কিশোরী সাফ থেকে এবারের আসর পর্যন্ত বাংলাদেশ কোনো ম্যাচ হারেনি। মাঝে হংকংয়ে জিতেছে চারজাতি টুর্নামেন্ট।

এবার ভুটানে বিজয় পতাকা ওড়াতে পারলে টানা তিনটি ট্রফি জমা হবে কিশোরীদের সাফল্যের ভান্ডারে। তার জন্য চাই আর দুটি ম্যাচ জয়। যার একটি বৃহস্পতিবার ভুটানের বিরুদ্ধে। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭ টায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

125 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ