জানুয়ারি ২০, ২০১৬ ১২:২৪ পূর্বাহ্ণ

প্রধানমন্ত্রী আসছেন, তাই দখলমুক্ত হচ্ছে ফুটপাত


সিলেট নগরীর ফুটপাত অবৈধ দখলমুক্ত করার অভিযানে নেমেছে সিলেট সিটি কর্পোরেশন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিলেট আগমন উপলক্ষ্যে এই অভিযান চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিস্টরা।

যদিও ব্যবসায়ীরা দীর্ঘদিন থেকেই নগরীর ফুটপাত দখলমুক্ত করার দাবি জানিয়ে আসছিলেন। তবে এ ব্যাপারে নগরকর্তৃপক্ষষ ছিলো অনেকটা উদাসীন।

সিসিকের দুইদিন ব্যাপী অভিযানের অংশ হিসেবে মঙ্গলবার সিলেট সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়।

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্টেট মো: শরীফুজ্জামানের নেতৃত্বে বেলা ১২টা থেকে এই অভিযান শুরু করা হয়।

সিসিকের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, অভিযানের শুরুতে তালতলা পয়েন্ট এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। এসময় রাস্তা ও ফুটপাত দখল করে রাখা হকারদেরকে তাদের স্থাপনা সরিয়ে নেওয়ার জন্য তাৎক্ষনিকভাবে সময় বেঁধে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে হকাররা নিজেরাই নিজেদের স্থাপনা গুটিয়ে নিয়ে যায়। তালতলা পয়েন্ট থেকে পরবর্তীতে সুরমা মার্কেট পয়েন্ট হয়ে সার্কিট হাউস পর্যন্ত অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় রাস্তার দুই পাশে থাকা হকাররা তাদের স্থাপনা সরিয়ে নিয়ে যায়।

সার্কিট হাউস সংলগ্ন ফুটপাত ও রাস্তা দখলমুক্ত করার পর পর্যায়ক্রমে বন্দরবাজার, জিন্দাবাজার, চৌহাট্টা, দরগাগেইট, মাজার গেইট এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানকালে ফুটপাত ও রাস্তার উপর থাকা ভাসমান হকারদের ৩০ মিনিটের মধ্যে অবৈধ স্থাপনা ও মালামাল সরিয়ে নেয়ার আল্টিমেটাম দেওয়া হয়। এসময় হকাররা নিজেরা তাদের মালামাল ও স্থাপনা সরিয়ে নিয়ে গেলে রাস্তা ও ফুটপাত দখলমুক্ত হয়ে যায়। বিকেল ৫টায় শাহজালাল (রহ.) মাজার গেইট এলাকায় গিয়ে প্রথম দিনের অভিযান শেষ করা হয়।

এদিকে রাস্তার দুই পাশের ফুটপাত থেকে অবৈধ হকারদের ও স্থাপনা উচ্ছেদ চলাকালে পথচারী এবং স্থানীয় মার্কেটের ব্যবসায়ীরা সিলেট সিটি কর্পোরেশনের অভিযানকে স্বাগত জানান। তারা বলেন, হকারদের দৌরাত্ব দিন দিন বেড়েই চলেছে। এই অবস্থা থেকে পরিত্রানের জন্য তারা সিটি কর্পোরেশনের অভিযান অব্যাহত রাখার আহবান জানান। হকারদের কারণে মার্কেটের প্রকৃত ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন তুলে ধরে ব্যবসায়ীরা ফুটপাত ও রাস্তা স্থায়ীভাবে দখলমুক্ত রাখার উপর গুরুত্বারোপ করেন।

অভিযানকালে এই ব্যাপারে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্টেট মো: শরীফুজ্জামান জানান, প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে এবং মহানগরীর নাগরিকদের সুবিধার্থে এই মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হচ্ছে। যাদেরকে উচ্ছেদ করার পরও পুনরায় ফুটপাত ও রাস্তা অবৈধভাবে দখল করবে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ফুটপাত দখলমুক্ত করার জন্য সিলেট সিটি কর্পোরেশনের অভিযান বুধবারও অব্যাহত থাকবে জানিয়ে সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবীব জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষ্যে এই অভিযান পরিচালনা করা হলেও আগামীতেও এই অভিযান চলতে থাকবে। রাস্তা ও ফুটপাত দখল যারাই করবে তাদেরকে কোন ছাড় দেওয়া হবে না। বারবার উচ্ছেদ করার পরও যারা ফুটপাত দখল করে ব্যবসা করছে তাদের বিরুদ্ধে অচিরেই কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলেও জানান তিনি।

অভিযানকালে মেট্রোপলিটন পুলিশের ফোর্স ছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের উপসহকারী প্রকৌশলী যান্ত্রিক তানভীর আহমদ তামিম, লাইসেন্স অফিসার আজিজুর রহমান, ডেপুটি ট্যাক্সেসেশন অফিসার মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর, সহকারী লাইসেন্স পরিদর্শক ফখরুল ইসলাম, শামীম আহমদ, কামাল খানসহ আরও অনেকেই।

নিউজটি শেয়ার করুন

338 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ