অক্টোবর ৭, ২০১৫ ১:৫৪ অপরাহ্ণ

ডিসেম্বরে পৌরসভা ও আগামী মার্চে ইউপি নির্বাচনের পরিকল্পনা


মেয়াদোত্তীর্ণ পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আগামী ডিসেম্বরে পৌরসভা ও ২০১৬ সালের মার্চে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। পৌরসভা নির্বাচন একযোগে ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ধাপে ধাপে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।

এলক্ষ্যে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে নির্বাচন উপযোগী পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদের তালিকা ইসিতে পাঠানো হয়েছে। নির্বাচন কমিশন সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম গণমাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ইসির সহকারী সচিব মোহাম্মদ আশফাকুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, ইসির চাহিদানুযায়ী ১লা অক্টোবর ৪ হাজার ৫৫৩টি ইউনিয়ন পরিষদের তালিকা আমরা হাতে পেয়েছি। তাতে শপথ ও পরিষদের প্রথম সভার তারিখ উল্লেখ আছে। এই তালিকা থেকে যাচাই করে মেয়াদোত্তীর্ণ এবং নির্বাচন উপযোগী ইউনিয়নের তালিকা করা হচ্ছে। এছাড়া সীমানা ও আইনগত জটিলতা রয়েছে এমন তালিকা আলাদা করা হচ্ছে।

ইসি সূত্র জানায়, সর্বশেষ ২০১১ সালে মার্চ থেকে জুন পর্যন্ত কয়েকটি ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া ২০১১সালের জানুয়ারি মাসে ৫ ধাপে দেশের ২৫৭টি পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। তাই ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারির মধ্যেই নির্বাচন সম্পন্ন করার আইনী বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

ইতিমধ্যে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে ৩২৩টি পৌরসভার মেয়াদ সংক্রান্ত তথ্যানুযায়ী আড়াই শতাধিক পৌরসভা নির্বাচন উপযোগী রয়েছে বলে জানা যায়।

এদিকে গত বছরের একযোগে উপজেলা নির্বাচনের প্রাক্কালে ব্যাপক সহিংসতা, কারচুপি, জালিয়াতি ও কেন্দ্র দখলের এমন অভিজ্ঞতা থেকে এবার ধাপে ধাপে নির্বাচন সম্পন্ন করার পরিকল্পনা করছে কমিশন।

নিউজটি শেয়ার করুন

270 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ