মার্চ ২৩, ২০১৭ ১:৩৯ পূর্বাহ্ণ

জনগণ সরকারের উন্নয়নে খুশি, নেতাদের আচরণে অখুশি


বাংলাদেশের জনগণ বর্তমান সরকারের উন্নয়নে খুব খুশি। কিন্তু নেতাদের কারো কারো আচরণে অসন্তুষ্ট। এমন মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের নেতাদের আচরণে সংযত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

বিলেবোর্ডে ছবির আধিক্যে অসন্তোষ প্রকাশ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, সিলেট আসতে আসতে দেখলাম অনেক বিলবোর্ড। ডিজিটাল বাংলাদেশের কথা আমরা বলি অথচ আমাদের নেতারা কর্মীরা, অনেক জায়গায় দেখেছি গত বিজয় দিবসের, গত ঈদের বিলবোর্ড এখনো রাস্তায় টানিয়ে রেখেছেন। এতে বঙ্গবন্ধুর- শেখ হাসিনার ছবি মলিন হয়ে গেছে। এসব ছবি দেখে আপনাদের কি লজ্জা করে না?

তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের কল্যাণে বিলবোর্ডে সবার চেহারা নায়কের মতো দেখায়। কিন্তু বিলবোর্ডে যাদের একরকম দেখি তাদের সামনে দেখি আরেক রকম। চেনা যায় না। কালা মানুষ ফর্সা হয়ে গেছে। নেতা, পাতি নেতা, সিকি নেতা যেভাবে বিলবোর্ডে ছবি দেয় মনে হয় তিনিও জাতীয় নেতা।

এসব ছবি কেনো দেখানো হয়, এসব ছবি দেখিয়ে মানুষকে ক্ষমতার দাপট দেখানো হয়- যুক্ত করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

বুধবার দুপুরে সিলেট আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে বিভাগীয় তৃণমূল প্রতিনিধি সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘প্রচার লীগ, তরুণ লীগ, কর্মজীবী লীগ, ডিজিটাল লীগ, হাইব্রিড লীগ আছে। কথা হাছা, সংগঠনে কাউয়া ঢুকছে। জায়গায় জায়গায় কাউয়া আছে। পেশাহীন পেশিজীবী দরকার নেই। ঘরের ভেতর ঘর বানানো চলবে না। মশারির ভেতর মশারি টানানো চলবে না।’

ওবায়দুল কাদের তরুণ নেতাদের আচরণে সংযত হওয়ার পরামর্শ দিয়ে বলেন, ক্ষমতার দাপট দেখাতে অনেকে মোটরসাইকেলে চড়ে হেলমেট পরে না। তিনজন দিগ্বিবিজয়ী আলেকজান্ডারের মতো রাস্তায় ঘুরে বেড়ায়। এর মাধ্যমে সিলেটের লোকদের দেখাতে চায়, দেখো আমরা কতো বড় ক্ষমতার মালিক। এইরকম মোটরসাইকেল আরোহী আমাদের দরকার নাই।

তিনি বলেন, সাধারণ মানুষ হেলমেট পরে। কিন্তু রাজনৈতিক কর্মীরা হেলমেট পরে না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, নেতাদের খুশি করলে চলবে না। জনগণকে খুশি করতে হবে। নেতাদের খুশি করে লাভ নেই। জনগণ, যারা আমাদের ক্ষমতায় বসাবে তাদের খুশি করতে হবে। ওই বিলবোর্ডের ছবি থাকবে না। জনগণের হৃদয়ে নাম লিখতে হবে।

নেতাদের সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদেরের এসব বক্তব্য করতালির মাধ্যমে স্বাগত জানান উপস্থিত কর্মীরা।

এসময় সড়ক মন্ত্রী আরো বলেন, তরুণদের একটা অংশ মাদকের খপ্পরে ও আরেকটা অংশ সাম্প্রদায়িক অপশক্তির খপ্পরে পড়ছে। আপনাদের সতর্ক থাকতে হবে। এই তরুণদের রক্ষা করতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

715 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ