জুন ২৮, ২০১৫ ১১:৪৪ অপরাহ্ণ

গণমাধ্যমের মধ্যে জঙ্গিবাদের চর্চা বন্ধে আইন সংশোধন : তথ্যমন্ত্রী


গণমাধ্যমের মধ্যে ঘাপটি মেরে থাকা জঙ্গিবাদের চর্চা ও উসকানি বন্ধে প্রেস কাউন্সিল অ্যাক্ট সংশোধন হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।
তিনি বলেছেন, প্রেস কাউন্সিল অ্যাক্ট পুনর্বিবেচনা করছি এই জন্য যে, গণমাধ্যমের মধ্যে ঘাপটি মেরে থেকে অনেকেই জঙ্গিবাদের চর্চা করে, উসকানি দেয়, গণমাধ্যমের পবিত্রতা নষ্ট করে।
রবিবার সংসদ সদস্য ক্লাবে ঢাকার বাইরের বিভিন্ন সংবাদপত্রের সম্পাদক-মালিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি একথা বলেন।
ডিসেম্বরে শীতকালীন অধিবেশনে আইন সংশোধনের প্রস্তাব সংসদে উত্থাপন করবেন বলে জানান তথ্যমন্ত্রী।
ঢাকার বাইরের গণমাধ্যম টিকিয়ে রাখতে মতবিনিময সভায় সাংবাদিকরা সরকারের সহযোগিতা কামনা করেন।
জবাবে মন্ত্রী বলেন, সরকার পৃষ্ঠপোষকতা করবে নীতি দিয়ে। প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে।
সরকারি বিজ্ঞাপন আগের মতোই জেলা পর্যায়ে দিতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ারও আশ্বাস দেন তিনি।
১৯৭৪ সালে বঙ্গবন্ধু আইন করে গিয়েছিল জানিয়ে জাসদ সভাপতি ইনু বলেন, খালেদা জিয়া সেই আইন সংশোধন করে সাংবাদিকদের শ্রমিক বানিয়ে দিয়েছে।
ডিসেম্বরে বঙ্গবন্ধুর করা এমপ্লয়ার্স আইনে প্রত্যাবর্তন করার চেষ্টা করবেন বলেও জানান তথ্যমন্ত্রী।
নৈরাজ্য এড়াতে অনলাইন পত্রিকার নিবন্ধন চালুর চেষ্টা করা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, সম্প্রচার কমিশনের নীতির ভিত্তিতে আমি সম্প্রচার আইন করার চেষ্টা করা হবে, এটাও ডিসেম্বরের শীতকালীন অধিবেশনে আনব।
গণমাধ্যমে মিথ্যাচার, উসকানি ও খণ্ডিত তথ্য প্রকাশের সমস্যা রয়েছে দাবি করে মন্ত্রী বলেন, এই অসৎ সাংবাদিকতা থেকে আপনারা গণমাধ্যমকে রক্ষা করবেন, সরকার আপনাদের পাশে থাকবে।
নিউজটি শেয়ার করুন

158 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ