জুলাই ৩০, ২০১৫ ২:১৬ পূর্বাহ্ণ

ক্যামেরার ফ্ল্যাশলাইটে চোখের গুরুত্বপূর্ণ কোষ ঝলসে যাওয়ায় চিরদিনের মত অন্ধ হয়ে গেল তিনবছরের শিশু।


কুলাউড়া সংবাদ ,বৃহস্পতিবার ৩০ জুলাই ২০১৫ 

ক্যামেরার ফ্ল্যাশলাইটে চোখের গুরুত্বপূর্ণ কোষ ঝলসে যাওয়ায় চিরদিনের মত অন্ধ হয়ে গেল তিনবছরের শিশু।

পারিবারিক অনুষ্ঠানে ছবি তুলছিলেন এক বন্ধু। মায়ের কোলে শুয়ে থাকা শিশুর ছবিও তোলেন তিনি। কিন্তু অসাবধানে ক্যামেরার ফ্ল্যাশলাইট অফ করতে ভুলে যান। তার মুখ থেকে মাত্র ১০ ইঞ্চি দূর থেকে ক্যামেরা তাক করে শাটার টিপতেই ফ্ল্যাশের তীব্র আলো জ্বলে ওঠে। ছবি তোলার পর শিশুর মধ্যে অস্বস্তি লক্ষ্য করেন তার বাবা-মা। বোঝা যায়, তার দেখতে অসুবিধা হচ্ছে।
চক্ষু বিশেষজ্ঞের কাছে নিয়ে যাওয়া হলে দেখা যায়, ফ্ল্যাশের ঝলকে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তার চোখের ভিতরে থাকা ম্যাকিউলার কোষ। উল্লেখ্য, এই ম্যাকিউলা অংশেই বাইরের আলোকরশ্মি প্রথম ফোকাস করে। এর সাহায্যেই সমান্তরাল দৃষ্টি ক্ষমতা তৈরি হয়। চিকিত্‍সকদের মতে, শিশুটির ডান চোখের দৃষ্টি সম্পূর্ণ নষ্ট হয়ে গিয়েছে। বাঁ চোখের দৃষ্টিশক্তিও যথেষ্ট ক্ষীণ। জানা গিয়েছে, সার্জারির সাহায্যেও এই ক্ষতি মেরামত করা সম্ভব নয়।

প্রসঙ্গত, শিশুর ৪ বছর বয়স না হওয়া পর্যন্ত ম্যাকিউলার গঠন সম্পূর্ণ হয় না। এই কারণে অতি উজ্জ্বল আলোর নীচে অত্যন্ত স্পর্শকাতর হয়ে পড়ে শিশু।
বিশেষজ্ঞদের সতর্কবাণী: জোরালো আলোর সামনে নিজে থেকেই শিশু চোখ বন্ধ করে নিলেও সেকেন্ডের ভগ্নাংশ সময়েও সেই আলো প্রবেশ করলে চোখ পাকাপাকি ভাবে নষ্ট হতে পারে। তাঁরা জানিয়েছেন, সমস্যা এড়াতে শিশুকে স্নান করানোর সময় শৌচালয়েও উজ্জ্বল আলো ব্যবহার করা অনুচিত।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

299 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ