এপ্রিল ২৩, ২০১৯ ৫:৩০ অপরাহ্ণ

কুলাউড়া হাসপাতালে ১৮ বছর পুর্বে ৫০ বেডের উন্নয়নের সূচনা করেছিলাম —সুলতান মনসুর


অনি চৌধুরীঃ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য, ডাকসুর সাবেক ভিপি জাতীয় নেতা মৌলভীবাজার-২ আসনের এমপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ বলেছেন, ১৮ বছরের থেমে থাকা বিভিন্ন সমস্যা ১৮ দিনে বা ১৮ মাসে করা সম্ভব নয়। ১৮ বছর পুর্বে আমি এমপি থাকাকালীন সময়ে হাসপাতালের ৩১শয্যা থেকে ৫০ বেডের উন্নয়নের সূচনা করেছিলাম। উন্নয়নের ধারা অব্যাহত না থাকায় আজ হাসপাতালের অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। তিনি বলেন স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করার অন্যতম প্রধান মহৎ কাজ হচ্ছে মানুষকে চিকিৎসা সেবা দিয়ে সুস্থ করে তোলা। নিজের ভেতরের মেধা বুদ্ধিকে কাজে লাগিয়ে মানুষিকতা বদলাতে হবে। সরকারীভাবে যে যার দায়িত্ব তা সঠিকভাবে পালন করতে হবে। আমাদের দেশ প্রেম ও মানব প্রেমের বড় অভাব। তিনি সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দেশপ্রেম এবং মানবপ্রেম সহকারে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে হাসপাতালের ডাক্তারসহ লোকবলের সংকট ও এক্সরে মেশিন চালুসহ সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস প্রদান করেন। তিনি মাদকমুক্ত,দূনীতিমুক্ত ও সন্ত্রাসমুক্ত সমাজসহ আধুনিক একটি কুলাউড়া উপজেলা গড়ার লক্ষ্যে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করে যাওয়ার আহবান জানান। গত শনিবার কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জাতীয় স্বাস্থ্য সেবা সপ্তাহ ২০১৯ এর সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন ।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.মোহাম্মদ নূরুল হক এর সভাপতিত্বে ও কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার আবুল কাসেম উসমানী এবং জান্নাত জামান এর সঞ্চালনায় অনুষ্টানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কুলাউড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ.কে.এম.সফি আহমদ সলমান,কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ আবুল লাইছ,পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মূধূসূদণ পাল চৌধুরী, হাসপাতালের এমসিএইচপিও ডাঃ সুলতান আহমদ,কনসালটেন্ট ডাঃ ইকবাল বাহার, ডাঃ ফাহমিদা ফারহানা খান, ডাঃ নাফিস কামাল, ডাঃ মেহেদি হাসান মুজুমদার, কুলাউড়া প্রেসক্লাব প্রতিষ্টাতা সভাপতি সুশীলসেন গুপ্ত, প্রেসক্লাব সাধারন সম্পাদক মোঃ খালেদ পারভেজ বখশ, উপজেলা স্যানেটারী ইন্সেসপেক্টর মোঃ জসিম উদ্দিন ভূইয়া, উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য অজয় দাস, নিরাময় ক্লিনিকের পরিচালক সেলুর রহমান, ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারের প্রোগ্রাম অফিসার আমান উল্ল্যাাহ প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আবসিক মেডিকেল অফিসার ডা.জাকির হোসেন। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক (ইনচার্জ) আব্দুল আহাদ চৌধুরী।


246 বার মোট শেয়ার হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ