আগস্ট ৫, ২০১৫ ২:৫৯ অপরাহ্ণ

ভারতে এক সঙ্গে দুই ট্রেন লাইনচ্যূত, নিহত ২৮


ভারতের মধ্যপ্রদেশ রাজ্যে মঙ্গলবার রাতে কয়েক মিনিটের ব্যবধানে দুটি যাত্রীবাহী ট্রেন লাইনচ্যূত হয়। এই দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ২৮ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ৪০ জন। আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর।

মঙ্গলবার স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ১১টার দিকে রাজ্যের হারদা জেলায় একটি সেতু অতিক্রম করার সময় দুর্ঘটনায় পড়ে বিপরীতগামী কামায়ানি এক্সপ্রেস ও জনতা এক্সপ্রেসে। দুর্ঘটনার পরপরই উদ্ধারকাজ শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে তিন শতাধিক মানুষকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছে।

মুম্বাই থেকে বারানসি যাচ্ছিল যাত্রীবাহী কামায়ানি এক্সপ্রেস। অন্যদিকে মুম্বাই থেকে জাবালপুরের দিকে যাত্রা করেছিল জনতা এক্সপেস। মঙ্গলবার রাতে হারদা জেলার কুদাওয়া রেলস্টেশনের কাছে মাচাক নদীর ছোট্ট সেতুর ওপর ওঠার পর কয়েক মিনিটের ব্যবধানে তারা দুর্ঘটনায় পড়ে। এতে কামায়ানি এক্সপ্রেসের ছয়টি বগি এবং জনতা এক্সপ্রেসের ইঞ্জিনসহ তিনটি বগি লাইনচ্যূত হয়।

তাৎক্ষণিকভাবে দুর্ঘটনার কারণ জানা যায়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে, বৃষ্টির কারণে ওই দুর্ঘটনা ঘটেছে। ভারতের উয়েস্ট সেন্ট্রাল রেলওয়ের পিআরও পিয়ুশ মাথুর জানিয়েছেন, ভারী বৃষ্টির কারণে সেতুর কিছু উপাদান ভেসে গিয়েছিল। তবে অন্য কর্মকর্তারা বলছেন, সম্ভবত কাছের একটি বাঁধ ভেঙে নদীর পানি রেললাইনে ওঠে যাওয়ায় এই লাইনচ্যূতির ঘটনা ঘটেছে।

এই দুর্ঘটনা সম্পর্কে ভারতের রেলওয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যান একে মিত্তাল রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যম পিটিআই’কে বলেছেন, ‘আমরা এই ঘটনার তদন্তের আহ্বান করেছি। ভবিষ্যতে এ ধরনের দর্ঘটনা যাতে না হয় আমরা সেটিও খতিয়ে দেখব।’

দুর্ঘটনার পরপরই উদ্ধার তৎপরতা শুরু হয়েছে। তিনটি বিশেষ ট্রেনে করে ঘটনাস্থলে ছুটে গেছেন চিকিৎসক ও উদ্ধারকর্মীরা। আহতদের হারদা জেলার হাসপাতালগুলোতে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে ওই দুর্ঘটনার কারণে মুম্বাইগামী আরো ২৫ রেলের যাত্রাপথ পরিবর্তন করা হয়েছে বলে এনডিটিভি জানিয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

225 বার মোট পড়া হয়েছে সংবাদটি
error: আপনি কি খারাপ লোক ? কপি করছেন কেন ?? হাহাহ